Advertisement

৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর পেটে কামড়, ফের নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া রাজধানীতে

09:13 AM Jul 07, 2019 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া রাজধানীতে। দিল্লির দ্বারকার কাছে একটি গ্রামে ধর্ষণের শিকার হল ছ’বছরের এক নাবালিকা। তার উপর হওয়া যৌন অত্যাচারের বৃত্তান্ত এতটাই ভয়াবহ যে চমকে গিয়েছেন চিকিৎসকরাও। অভিযুক্ত বছর চব্বিশের মহম্মদ নানহেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নির্যাতিতা নাবালিকার অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক। সে সফদরজং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[ আরও পড়ুন: ‘ফাঁসানো হচ্ছে’, রাষ্ট্রপতিকে রক্তে লেখা চিঠিতে সাহায্যের আরজি দুই বোনের]

পুলিশ জানিয়েছে, রবি লাল নামে এক স্থানীয় ব্যক্তি প্রথম রক্তাক্ত অবস্থায় অচৈতন্য মেয়েটিকে দেখতে পায়। তিনি আস্তাকুঁড়ের মধ্যে থেকে উদ্ধার করে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে পরে তাকে রেফার করা হয় সফদরজং হাসপাতালে। চিকিৎসকদের দাবি, নৃশংস অত্যাচার চালানো হয়েছে নাবালিকার উপর। তাঁর গোপনাঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত তো হয়েছে, পেটেও মিলেছে কামড়ানোর দাগ। স্থিতিশীল অবস্থায় আনতে তার একাধিক অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন। অভিযুক্ত নানহেকে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কুকীর্তির কথা সে স্বীকারও করেছে। উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরের বাসিন্দা নানহে তিন মাস আগে দিল্লিতে এসেছিল। নাবালিকার দাদা জানিয়েছে, ঘটনার দিন তার মা-বাবা দু’জনেই বাইরে ছিল। তারা তিন ভাইবোন বাড়ির বাইরে খেলছিল। নানহে এসে ‘ম্যাঙ্গো ড্রিংক’-খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে বোনকে নিয়ে যায়। এরপর ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ৷

[ আরও পড়ুন: স্কুলে ঝাঁট দিতে গিয়ে কামড়াল বিছে, প্রধান শিক্ষকের কুসংস্কারের জেরে মৃত ছাত্র]

এদিন সফদরজং হাসপাতালে শিশুটিকে দেখতে যান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিশোদিয়া, মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়ালও। কেজরিওয়াল নাবালিকার পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা এককালীন আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে স্বাতীর দাবি, মামলার শুনানি হোক ফাস্ট ট্র‌্যাক কোর্টে। পাশাপাশি দোষীর জন্য ঘোষণা হোক মৃত্যুদণ্ড।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

The post ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর পেটে কামড়, ফের নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া রাজধানীতে appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next