Advertisement

কর্ণাটকের পুর নির্বাচনে বড় সাফল্য কংগ্রেসের, বিপর্যয়ের মুখে বিজেপি

03:26 PM May 01, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাত পোহালেই চার রাজ্য এবং এক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভোট গণনা। তার আগে দক্ষিণের আরেক রাজ্যের পুর নির্বাচনে বড় ধাক্কা খেল বিজেপি (BJP)। জয়জয়কার কংগ্রেসের। যা দেখে নতুন করে উজ্জীবিত কংগ্রেস শিবির।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

কর্ণাটকের (Karnataka) পুরসভা ও মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের ভোটে ভরাডুবি হল বিজেপির। ১০টি পুরসভার মধ্যে সাতটি দখল করেছে কংগ্রেস (Congress)। একটি মাত্র পুরসভার দখল পেয়েছে রাজ্যের শাসকদল বিজেপি। সবমিলিয়ে কংগ্রেস জয়লাভ করেছে ১১৯টি আসনে। জেডিএস এবং বিজেপি জিতেছে যথাক্রমে ৬৭ ও ৫৬টি আসন। পাঞ্জাব, হিমাচলের পর কর্নাটকের স্থানীয় নির্বাচনেও মুখ থুবড়ে পড়ল গেরুয়া শিবির। যা দেখে রাজনৈতিক মহল বলছে, দক্ষিণের এই রাজ্যে পিছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা দখল করেছিল বিজেপি। তাঁদের এই কৌশলকে সমর্থন করেনি আমজনতা। তারই ফল মিলল এই ভোটে।

[আরও পড়ুন : জুলাইয়ের আগে বেসরকারি হাসপাতালে টিকা পাবেন না ১৮ ঊর্ধ্বরা, জানিয়ে দিল সেরাম]

ভোট গণনা শেষ হতেই কর্ণাটক কংগ্রেসের প্রধান শিবকুমার টুইট করেন, “কংগ্রেসের উপর আস্থা রাখার জন্য রাজ্যবাসীকে ধন্যবাদ। নিজেদের কৃতকর্মের জন্য শাস্তি পেয়েছে বিজেপি।” তিনি আরও জানিয়েছেন, “এটা উচ্ছ্বাসের সময় নয়। কর্ণাটকের দলীয় কর্মীদের কাছে আবেদন, আপনারা বিজয় উৎসব করবেন না। দেশজুড়ে স্বাস্থ্যের জরুরি অবস্থা চলছে। এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেস কর্মীরা মানুষের পাশে দাঁড়াবেন। তাঁদের জন্য কাজ করবেন। কর্ণাটক বিধানসভার বিরোধী দলনেতা সিদ্দারামাইয়া জানিয়েছেন, “এই ফলাফলেই স্পষ্ট রাজ্যের শাসকদল বিজেপি ক্ষমতায় থাকার যোগ্যতা হারিয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকেননি তাঁরা। মানুষের জীবন নিয়ে খেলছে তাঁরা। মানুষই তাঁদের উচিৎ শিক্ষা দিয়েছে।” রাজ্যের সরকার ভেঙে দেওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

 

[আরও পড়ুন : উধাও চালক, মধ্যপ্রদেশে পথের ধারে পরিত্যক্ত ট্রাকে মিলল প্রায় আড়াই লক্ষ টিকার ডোজ!]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next