Advertisement

কেন করোনার ওষুধ মজুত করেছেন? আদালতের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে গম্ভীর

07:18 PM May 17, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাংসদ, রাজনৈতিক নেতাদের করোনার ওষুধ মজুত করা নিয়ে ফের কঠোর অবস্থান নিল দিল্লি হাই কোর্ট (Delhi High Court)। ওষুধের জন্য সাধারণ মানুষ যখন হাহাকার করছেন, তখন রাজনৈতিক নেতাদের ওষুধ মজুত করে রাখার কোনও অধিকার নেই বলে মন্তব্য করেন বিচারপতি বিপিন সাংঘি এবং জসমিত সিং।

Advertisement

সম্প্রতি অভিযোগ ওঠে পূর্ব দিল্লির বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir) ‘ফ্যাবিফ্লু’ ওষুধ প্রচুর পরিমাণে মজুত করেছেন। করোনা রোগীদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে এই ওষুধ ব্যবহার হয়। গৌতম গম্ভীর নাকি তাঁর সংসদীয় এলাকায় বিনামূল্যে এই ওষুধ বিতরণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সে কারণেই বিপুল পরিমাণ ফ্যাবিফ্লু তিনি মজুত করেছিলেন বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে নৈরাজ্য চলছে, নীরব পুলিশ-প্রশাসন, টুইটারে ফের বিস্ফোরক রাজ্যপাল ধনকড়]

সেই ঘটনা সামনে আসতেই চিকিৎসক দীপক সিং ওই বেআইনি মজুতের বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা করেন। সেই মামলার শুনানির সময় আদালত বলে, মানুষের জন্য ওষুধের ব্যবস্থা করতে হলে ডিরেক্টর জেনারেল অফ হেল্থ সার্ভিসে ওষুধ জমা করুন। রাজনৈতিক নেতাদের ওষুধ মজুত করার কোনও প্রয়োজন নেই। ডিরেক্টর জেনারেল অফ হেল্থ সার্ভিস ওই ওষুধ হাসপাতালের মাধ্যমে মানুষের কাছে বিতরণ করবে।

আদালত প্রশ্ন তোলে, গৌতম গম্ভীরের ওষুধ মজুত করার কোনও লাইসেন্স আছে কিনা। যদি না থাকে তাহলে কেমিস্ট, ড্রাগিস্টদের কাছ থেকে কী করে এই বিপুল পরিমাণ ওষুধ জমা করে ফেললেন। শুনানির সময় কড়া ভাষায় সমালোচনা করলেও দিল্লি হাই কোর্ট এই সংক্রান্ত কোনও নির্দেশ জারি করেনি। রাজনৈতিক নেতাদের ভুল শুধরে নেওয়ার কথা বলা হয়। ওষুধ বাজেয়াপ্ত নিয়ে কোনও নির্দেশ দিতে চায়নি আদালত।

[আরও পড়ুন: কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে উসকানি! মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে FIR করলেন দিলীপ ঘোষ]

Advertisement
Next