Advertisement

Farmers Protest: কৃষক সমস্যা না মিটলে মুশকিল পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ জয়! আলোচনা RSS-এর বৈঠকে

01:38 PM Sep 05, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আসন্ন পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে কৃষক বিক্ষোভ (Farmers Protest)। আরএসএসের দু’দিনের বৈঠকের আলোচনার সারাংশ হিসাবে উঠে এসেছে এই তথ্যই। সংঘ নেতারা মনে করছেন, দ্রুত কেন্দ্রের উচিত কৃষক নেতাদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করা। সেটা না হলে পাঞ্জাবে ভাল ফল করা একপ্রকার অসম্ভব। শুধু তাই নয়, কৃষক অধ্যুষিত পশ্চিম উত্তরপ্রদেশেও সমস্যায় পড়তে পারে গেরুয়া শিবির।

Advertisement

RSS সূত্রের খবর, শুক্র ও শনিবার নাগপুরে যে দু’দিনের চিন্তন শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল, তাতে মূল আলোচ্য বিষয়ই ছিল আসন্ন পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন। ওই পাঁচ রাজ্যের মধ্যে গোয়া, মণিপুর, উত্তরপ্রদেশ (Uttar Pradesh) ও উত্তরাখণ্ডে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি (BJP)। সেখানে ক্ষমতা ধরে রাখার কৌশল নিয়ে বৈঠকে যেমন আলোচনা হয়েছে, তেমনই যে রাজ্যে বিজেপি সবচেয়ে দুর্বল, সেই পাঞ্জাব নিয়েও আলোচনা হয়েছে। আর সেখানেই আসল সমস্যা দেখছেন সংঘ নেতারা। তারা মনে করছেন, কৃষক সমস্যা না মেটালে পাঞ্জাবে ভাল ফল করা সম্ভব নয়। সমস্যা হতে পারে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের কৃষক অধ্যুষিত এলাকা নিয়েও।

[আরও পড়ুন: পিছনে বাইডেন, জনসন! বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা Narendra Modi, বলছে মার্কিন সমীক্ষা]

উল্লেখ্য, কেন্দ্রের বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন (Farm Laws) প্রত্যাহারের দাবিতে সেই নভেম্বর মাস থেকেই আন্দোলনরত পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ-সহ কয়েকটি রাজ্যের কৃষকরা। বেশ কয়েক দফায় কৃষকদের সঙ্গে আলোচনার পরও তাঁদের সমস্যা মেটাতে পারেনি কেন্দ্র। রবিবারই উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরে বিরাট কিষাণ মহাপঞ্চায়েতের আয়োজন করা হয়েছে। যাতে বিভিন্ন রাজ্য থেকে হাজার হাজার কৃষক অংশগ্রহণ করছেন। কংগ্রেস-সহ কয়েকটি রাজনৈতিক দল ইতিমধ্যেই কৃষকদের এই আন্দোলনকে সমর্থন করেছে। যা চিন্তা আরও বাড়াচ্ছে সংঘের।

[আরও পড়ুন: রাজস্থানের পঞ্চায়েত নির্বাচনে বড় জয় কংগ্রেসের, পিছিয়ে বিজেপি]

প্রসঙ্গত, আরএসএসের (RSS) বৈঠকে উঠে এসেছে আফগানিস্তান প্রসঙ্গও। তালিবানের (Taliban) আফগানিস্তান দখলের ফলে কাশ্মীরের শান্ত পরিস্থিতি নষ্ট হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে বৈঠকে। সংঘ নেতারা মনে করছেন, এ বিষয়ে কেন্দ্রকে আরও সতর্ক হতে হবে। এদেশের মুসলিমদের কাছে তালিবানের বর্বরতা আরও স্পষ্টভাবে তুলে ধরতে হবে।

Advertisement
Next