বিভেদ জাগিয়ে তোলা হবে, হিজাব মামলায় পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের

02:49 PM Sep 22, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্লাসরুমে হিজাব (Hijab Row) পরে এলে পড়ুয়াদের মধ্যে বৈচিত্র্য তৈরি হবে, এমনটাই মত দিল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। সেই সঙ্গে ধর্মীয় পরিচিতি নিয়ে সকলে বেশি সচেতন হয়ে পড়বে, এমন পর্যবেক্ষণ শীর্ষ আদালতের। প্রসঙ্গত, কর্ণাটক সরকারের তরফে বলা হয়েছিল, স্কুলের ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরার অনুমতি দেওয়া যাবে না। সেই মামলা প্রসঙ্গেই এহেন মন্তব্য শীর্ষ আদালতের।

Advertisement

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হেমন্ত গুপ্তা ও সুধাংশু ধুলিয়ার বেঞ্চে হিজাব মামলার শুনানি চলছে। সেখানেই কর্ণাটক সরকারের দাবির প্রেক্ষিতে বিচারপতিদের বেঞ্চের তরফে বলা হয়েছে, “হিজাব পরে আসার অনুমতি দিলে ভারতের বৈচিত্র্য সম্পর্কে সচেতন হতে পারবে পড়ুয়ারা। তাছাড়া ধর্মীয় পরিচিতি নিয়েও তারা অনেক বেশি ওয়াকিবহাল থাকতে পারবে।” কর্ণাটক সরকারের তরফে বলা হয়, সমস্ত রকম ভেদাভেদ থেকে দূরে রাখা উচিত পড়ুয়াদের।

[আরও পড়ুন: কর্মীদের মানসিক স্বাস্থ্যে জোর, উৎসবের মরশুম ফুরোলেই টানা ১১ দিন ছুটি, ঘোষণা সংস্থার]

কিন্তু স্কুল জীবন শেষ হয়ে গেলে বৈচিত্র্যময় জগতের মধ্যেই পড়তে হবে, এমনই মত সুপ্রিম কোর্টের। বিচারপতিদের তরফে বলা হয়েছে, “স্কুল শেষ হওয়ার পরে নানা ক্ষেত্রে বৈচিত্র্যের সম্মুখীন হতে হবে পড়ুয়াদের। পোশাক, ভাষা, ধর্ম, খাবার-সমস্ত ক্ষেত্রেই নানা রকমের বিভাজনের মুখোমুখি হবে তারা। তাই শিশু অবস্থায় যদি সমস্ত রকম বিভাজনের সঙ্গে পড়ুয়াদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া যায়, ভবিষ্যতে লাভবান হবে পড়ুয়ারাই।”

Advertising
Advertising

অন্যদিকে, হিজাব মামলায় লাগাতার শুনানিতে বিরক্ত হয়ে পড়েছে শীর্ষ আদালত। বিচারপতিরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার এক ঘণ্টা সময় দেওয়া হবে দুই পক্ষকে। তার মধ্যেই নিজেদের বক্তব্য পেশ করতে হবে আইনজীবীদের। টানা ন’দিন ধরে শুনানি চলার পরে দুই বিচারপতির বেঞ্চ জানিয়েছে, “এবার আর ধৈর্য্য ধরে মামলা শোনা যাচ্ছে না। এক ঘণ্টার মধ্যেই এই শুনানি শেষ করতে হবে।” শীর্ষ আদালতের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে, শুনানির জন্য এর থেকে বেশি আর সময় দেওয়া যাবে না হিজাব মামলায়।

[আরও পড়ুন: মমতার উপর কী জাদু করেছেন? ধনকড়কে প্রশ্ন গেহলটের, খোঁচার জবাব দিল তৃণমূল]

 

Advertisement
Next