সেপ্টেম্বরের মধ্যেই কয়লার ব্যাপক ঘাটতির আশঙ্কা, বিদ্যুৎ সংকটে দেশ!

06:11 PM May 28, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এমাসের শুরুতেই দিল্লি-সহ বহু রাজ্যেই বিদ্যুতের সংকট দেখা দিয়েছিল কয়লার (Coal) ঘাটতি ঘিরে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের মধ্যে অর্থাৎ তৃতীয় ত্রৈমাসিকের মধ্যেই দেশে কয়লার চাহিদায় ব্যাপক ঘাটতি (Power cut) দেখা দিতে পারে, এই আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। অত্যধিক বিদ্যুতের চাহিদার ফলেই এই সংকট দেখা দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। দেশের বিদ্যুৎমন্ত্রকের এক অভ্যন্তরীণ রিপোর্ট থেকে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এমনটাই জানতে পেরেছে।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

ওই রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, কেন্দ্রের আশঙ্কা কয়লার সরবরাহের তুলনায় চাহিদা ১৫ শতাংশ বাড়তে পারে। ফলে সব মিলিয়ে ৪ কোটি ২৫ লক্ষ টন ঘাটতি হতে পারে কয়লার। অত্যধিক চাহিদার পাশাপাশি কয়েকটি খনি থেকে কয়লার জোগানে ঘাটতিতেও এই সমস্যা দেখা দেবে বলে জানা যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘আমি নেই, ৪০% ভোট পেয়ে দেখান’, বাংলা ছাড়ার আগে সুকান্ত-শুভেন্দুদের চ্যালেঞ্জ দিলীপের]

ভারতে বাৎসরিক বিদ্যুতের চাহিদা অন্তত ৩৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত হারে বাড়ছে। এই সময়ই এই আশঙ্কার কথা জানা গেল। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কায় সরবরাহ কমার ফলে সারা বিশ্বে কয়লার দামও রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলছে।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

সেপ্টেম্বরের শেষে বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে দেশে কয়লা প্রয়োজন হবে ১৯ কোটি ৭৩ লক্ষ টন। কিন্তু কয়লা সরবরাহ ১৫ কোটি ৪৭ লক্ষ টনের বেশি হবে না বলেই আশঙ্কা কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের। যার ফলে ৪ কোটি ২৫ লক্ষ টনের ঘাটতি তৈরি হবে।

এই পরিস্থিতিতে কয়লা সমস্যার সমাধানে ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্র। কয়লা আমদানি বাড়াতে বিভিন্ন পরিষেবা সংস্থাগুলোর উপর চাপ বাড়িয়েছে সরকার। রাজ্য সরকারের মালিকানাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলি যদি আমদানির মাধ্যমে কয়লা মজুদ না রাখে, তাহলে খনি থেকে উত্তোলিত কয়লা সরবরাহ কমানো হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। তবে কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ এবং কয়লা মন্ত্রকের তরফে এখনও এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

[আরও পড়ুন: এবার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েও ‘ব্রাত্য’ রাজ্যপাল? ভিজিটর হতে পারেন শিক্ষামন্ত্রী]

Advertisement
Next