খলিস্তানি নেতাকে খুনের পরিকল্পনায় শামিল ভারতীয় কূটনীতিক! মার্কিন অভিযোগে ক্ষুব্ধ দিল্লি

05:37 PM Nov 30, 2023 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খলিস্তানি নেতা (Khalistani) গুরপতবন্ত সিং পান্নুনকে খুনের ছক কষার অভিযোগ উঠেছে এক ভারতীয় বংশোদ্ভূতের বিরুদ্ধে। তাঁর সঙ্গে নাকি ভারতীয় কূটনীতিকেরও যোগ ছিল! আমেরিকার এই বক্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর তীব্র নিন্দা করেছে ভারত। বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জানান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের (USA) এই অভিযোগ খুবই গুরুতর। আন্তর্জাতিক কূটনীতির নিয়মাবলিও ভঙ্গ করেছে আমেরিকা। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে নয়াদিল্লি।

Advertisement

দিন কয়েক আগে মার্কিন রিপোর্টে বলা হয়েছিল, আমেরিকার মাটিতে এক শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাকে খুনের চেষ্টা চলছে। তার পরই বুধবার আমেরিকার তরফে জানানো হয়, ‘নিউ ইয়র্কের বাসিন্দা ভারতীয় (India) বংশোদ্ভূত এক আইনজীবী ও রাজনৈতিক কর্মীকে হত্যার ছক কষা হয়েছিল। এই ষড়যন্ত্রে ভারতের এক সরকারি আধিকারিকের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন নিখিল গুপ্তা। আরও কয়েকজনের সঙ্গে মিলে তাঁরা কাজ করতেন।’ গ্রেপ্তারির পর আপাতত পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন নিখিল।

[আরও পড়ুন: ‘গরিবরাই সবচেয়ে বড় জাত’, জাতিগত জনগণনা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে মন্তব্য মোদির]

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তীব্র নিন্দা করেছে ভারত। সাংবাদিক সম্মেলনে এসে বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেন, “মার্কিন আদালতে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই ব্যক্তির সঙ্গে এক ভারতীয় কূটনীতিকের যোগাযোগ রয়েছে বলেও দাবি উঠেছে। গোটা বিষয়টিই খুব উদ্বেগজনক। এই আচরণে কূটনীতিক নিয়মাবলিও লঙ্ঘিত হয়েছে।” যদিও এই নিয়ে বিশদ কিছু বলেননি মুখপাত্র। তিনি জানান, নিরাপত্তাজনিত কারণেই এই নিয়ে তথ্য প্রকাশ করা সম্ভব নয়।

কয়েকদিন আগে প্রকাশিত এক মার্কিন রিপোর্টে বলা হয়, আমেরিকার (US) মাটিতে এক শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদীকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, নাম না করে রিপোর্টে গুরপতবন্ত সিং পান্নুনের কথাই তুলে ধরা হয়েছে। এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পরেই ভারতের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করে আমেরিকা। এর পরই দিল্লির সঙ্গে বৈঠকে বসে ওয়াশিংটন। গত ১৮ নভেম্বর উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে ভারত। এর পরেই প্রকাশ্যে আনা হল নিখিলের নাম।

[আরও পড়ুন: বিস্ফোরণের একদিন পর সুরাটের রাসায়নিক কারখানা থেকে উদ্ধার ৭ শ্রমিকের দেহ]

Advertisement
Next