‘নূপুর শর্মার জিভ কাটলেই মিলবে ২ কোটি’, ভিডিও ভাইরাল হতেই পুলিশের জালে অভিযুক্ত

09:38 PM Jul 07, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নূপুর শর্মার (Nupur Sharma) কাটা জিভ আনতে পারলেই মিলবে ২ কোটি টাকা পুরস্কার। এমনই হিংসাত্মক মন্তব্য করে হরিয়ানায় পুলিশের জালে এক ব্যক্তি। একটি ভিডিওয় এক ইউটিউবারের সঙ্গে কথা বলার সময় অভিযুক্ত ইরশাদ প্রধান ওই প্রস্তাব দেন বলে জানা গিয়েছে। পরে ভিডিওটি তিনি ফেসবুকেও আপলোড করেন। এরপরই পুলিশ ইরশাদকে আটক করে।

Advertisement

এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে হরিয়ানার (Haryana) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল ভিজ জানিয়েছেন, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে। তাঁর কথায়, ”যারা দেশের শান্তিকে বিঘ্নিত করতে চাইবে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট বরুণ সিংলা জানিয়েছেন, ”আইন মেনেই পদক্ষেপ করা হবে। আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া সেল কাজ শুরু করে দিয়েছে। যাতে এই ধরনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় না ছড়িয়ে পড়ে সেদিকে লক্ষ রাখা হচ্ছে। আমরা সকলের কাছে আরজি জানাচ্ছি, যেন কেউ এই ধরনের ভিডিও ও সাম্প্রদায়িক কনটেন্ট শেয়ার না করে।”

[আরও পড়ুন: ইডি সক্রিয় হতেই ভারত থেকে ‘পলাতক’ চিনা মোবাইল সংস্থা VIVO’র দুই ডিরেক্টর]

ঠিক কী দেখা গিয়েছে ভিডিওতে? সেখানে ইরশাদকে এক ইউটিউবারকে বলতে শোনা গিয়েছে, ”ওঁর জিভ নিয়ে আসুন আর ২ কোটি টাকা নিয়ে যান। কাজটা করলেই সঙ্গে সঙ্গে টাকা মিলবে।” ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পরই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই তদন্তে নামে পুলিশ। দ্রুত ইরশাদের বাড়িতে রেইড করে পুলিশ। সেখান থেকে আটক করা হয় তাঁকে।

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত, এর আগে একই ধরনের মন্তব্য করে গ্রেপ্তার হয়েছেন আজমেঢ় শরিফের খাদিম সলমন চিস্তি। তাঁকে একটি ভিডিওয় বলতে শোনা গিয়েছিল, ”যদি কেউ নূপুর শর্মার মাথা কেটে আমার কাছে নিয়ে আসে, তাহলে আমার বাড়িটা তাকে দিয়ে দেব।” ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর বিতর্ক ক্রমশই বাড়তে থাকে। তারপর থেকেই নিখোঁজ হয়ে যান ওই ব্যক্তি। অবশেষে গভীর রাতে গ্রেপ্তার করা হয় সলমনকে।

[আরও পড়ুন: থানে পুরসভাও হাতছাড়া উদ্ধবের, ৬৬ কাউন্সিলর যোগ দিলেন শিণ্ডে শিবিরে]

উল্লেখ্য, রাজস্থানের উদয়পুরে (Udaipur) যুবকের মুণ্ডচ্ছেদের ঘটনায় তোলপাড় দেশ। এই পরিস্থিতিতে হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা করে সকলকে শান্তি বজায় রাখার আরজি জানাতে দেখা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। পাশাপাশি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী কিংবা আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়ালের মতো নেতাও হত্যাকাণ্ডের নিন্দায় সরব হন।

Advertisement
Next