কর্ণাটকে বিষাক্ত পানীয় জল খেয়ে মৃত্যু তিনজনের, অসুস্থ আরও ৬০

08:51 PM Jun 06, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পানীয় জলে বিষক্রিয়া। সেই জল পান করে মৃত্যু হল তিন জনের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন আরও তিনজন। অসুস্থ কমপক্ষে ৬০ জন। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের (Karnataka) রায়চুর জেলায়। ইতিমধ্যেই এই দুর্ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই। মৃতদের পরিবারের জন্য পাঁচ লক্ষ টাকা করে অনুদান ঘোষণা করেছে কর্ণাটক সরকার। এই ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগে এক জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

Advertisement

অনুমান করা হচ্ছে, প্রবল বৃষ্টির ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পানীয় জল (Drinking Water) সরবরাহকারী লাইন। সেই কারণেই নোংরা জল মিশেছে পানীয় জলের সঙ্গে। সেই বিষাক্ত জল পান করেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে ধারণা। তাঁদের সকলকেই হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে। গোটা ঘটনার বিশদ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বোম্মাই। সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেছেন, “বিষাক্ত জল পান করে তিন জনের মৃত্যুর ঘটনায় অত্যন্ত বিচলিত রাজ্য সরকার। পানীয় জল সরবরাহ দপ্তরের কাছে ইতিমধ্যেই রিপোর্ট চেয়েছি আমি।”

[আরও পড়ুন: ভারতীয় নোটে বদল আনা হচ্ছে না, ছবি নিয়ে জল্পনা উড়িয়ে জানাল RBI]

মুখ্যমন্ত্রী (Basavaraj Bommai) আরও জানিয়েছেন, নিকাশি ব্যবস্থা এবং পানীয় জল সরবরাহ দপ্তর, দুই বিভাগকেই দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের সমস্ত জায়গা থেকেই পানীয় জলের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। কাজে গাফিলতির অভিযোগে এক জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তবে প্রশ্ন উঠছে, সংশ্লিষ্ট দপ্তরের আধিকারিকরা নিজেদের দায় ঝেড়ে ফেলছেন। সেই কারণেই পুরো ঘটনার দায় চাপানো হয়েছে ওই জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ারের উপরে। আঙুল উঠছে বিজেপি শাসিত কর্ণাটক সরকারের দিকেও। 

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত, রায়চুর জেলায় বরাবর পানীয় জলের (Water Crisis) সমস্যা থাকেই। এই ঘটনায় পুলিশি তদন্তেরও নির্দেশ দিয়েছেন বোম্মাই। তিনি বলেছেন, “আধিকারিকদের তরফে কোনও গাফিলতির অভিযোগ পাওয়া গেলে অবিলম্বে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে মৃতদের পরিবার পিছু পাঁচ লক্ষ টাকা করে দেওয়া হবে, সেই ঘোষণাও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: মোদি সরকার গ্রামে শৌচালয় নির্মাণ করায় বহু রাজ্যে কমেছে ধর্ষণ, দাবি সম্বিত পাত্রর

Advertisement
Next