Advertisement

মহাকাশে ঢিল ছোঁড়া দুরত্বে চলে এসেছিল ভারত ও রাশিয়ার উপগ্রহ! অল্পের জন্য এড়াল সংঘর্ষ

03:56 PM Nov 29, 2020 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অল্পের জন্য মহাকাশে ঘটল না বড়সড় দুর্ঘটনা। রক্ষা পেল ভারত–রাশিয়া দু’‌দেশের একটি করে উপগ্রহ। পৃথিবীর চারিদিকে নিজেদের নির্দিষ্ট কক্ষপথে ঘুরতে ঘুরতে একেবারে কাছাকাছি চলে এসেছিল উপগ্রহ দু’‌টি। দূরত্ব কমে এসেছিল মাত্র কয়েকশো মিটারে। শেষপর্যন্ত অবশ্য দুর্ঘটনাটি ঘটেনি। তবে এই নিয়ে রুশ মহাকাশ গবেষণা সংস্থা রসকসমস এবং ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর বা ISRO’র (Indian Space Research Organisation) মধ্যে কিছুটা তরজাও হয়েছে।

Advertisement

জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার রাশিয়ার Kanopus–V উপগ্রহ এবং ISRO-র Cartosat 2F খুব কাছাকাছি চলে এসেছিল। ইসরোর উপগ্রহটির ওজন ৭০০ কেজি। অন্যদিকে, রুশ উপগ্রহটির ওজন ছিল ৪৫০ কেজি। ফলে সংঘর্ষ বাধলে মহাকাশে ঘটতে পারত বড়সড় বিপত্তি। রাশিয়ার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা রসকসমস (Roscosmos) জানিয়েছে, শুক্রবার ভারতের উপগ্রহটি রাশিয়ার Kanopus-V–এর মাত্র ২২৪ মিটার দূর থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতীয় সময় সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ। তাঁদের তরফ থেকে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানিয়ে বিবৃতিও দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, ইসরো প্রাথমিকভাবে কোনও বিবৃতি না দিলেও, পরবর্তীতে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইসরো চেয়ারম্যান জানান, ২২৪ মিটার নয়, দু’‌টি উপগ্রহের মধ্যে দূরত্ব ছিল ৪২০ মিটার।

[আরও পড়ুন: মঙ্গল অভিযানে আমেরিকা, চিনের পর নাম লেখাচ্ছে ব্রিটেনও, দু’বছরের মধ্যে পাড়ি দেবে রোভার]

সাধারণত, মহাকাশে একই কক্ষপথে দুটি উপগ্রহের মধ্যে ন্যূনতম দূরত্ব হওয়া উচিত এক কিলোমিটার। কিন্তু মহাকাশে যেহতু রোজই উপগ্রহের সংখ্যা বাড়ছে, প্রতি ৩-৪ সপ্তাহ অন্তর প্রত্যেকটির কক্ষপথ পর্যালোচনা করা হয়। ভূপৃষ্ঠের ৫০০–২০০০ কিলোমিটারের মধ্যেই সবচেয়ে বেশি উপগ্রহ রয়েছে। কোনওটি ১০ সেন্টিমিটার তো কোনওটি আবার একটি ছোট গাড়ির সমান। এর আগে ২০০৯ সালে একটি মার্কিন উপগ্রহের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছিল একটি রুশ উপগ্রহের।

[আরও পড়ুন: ইসরোর শুক্র অভিযানে অংশ নিতে উৎসাহী সুইডেন, অত্যাধুনিক যন্ত্র দিয়ে সাহায্যের প্রস্তাব]

Advertisement
Next