Advertisement

ভারতের মহিলা ক্রিকেট দলে চলছে তারকাতন্ত্র! রাহুল-সৌরভকে বিস্ফোরক চিঠি রামনের

12:02 PM May 15, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিস্ফোরক চিঠি ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের (Indian Women’s Cricket Team) বিদায়ী কোচ ডব্লিউ ভি রামনের (WV Raman)। ভারতীয় বোর্ডকে পাঠানো বিদায়ী চিঠিতে ভারতীয় টিমের তারকাতন্ত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন মহিলা টিমের অপসারিত কোচ। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (BCCI) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) এবং জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান রাহুল দ্রাবিড়কে (Rahul Dravid) পাঠানো চিঠিতে রামন জানালেন, ভারতীয় টিমে তারকাতন্ত্র বন্ধ করা দরকার। একই সঙ্গে চিঠিতে রামন জানিয়ে দিয়েছেন, বোর্ড বললে ভারতীয় মহিলা টিমের উন্নতির রোডম্যাপও তিনি করে দেবেন।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বোর্ডকে পাঠানো চিঠিতে রামন লিখেছেন যে, তিনি চিরকাল বিশ্বাস করে এসেছেন, ব্যক্তির আগে দল। নিজে চিরকাল ব্যক্তির তুলনায় দলের স্বার্থকে এগিয়ে রেখেছেন। এবং সব সময় বলে এসেছেন যে, কোনও ব্যক্তি টিমের স্বার্থের উপর উঠতে পারে না। তবে চিঠিতে কোনও ক্রিকেটারের নাম নেননি রামন। শুধু টিমে তারকাতন্ত্রের যে রাজ চলে, সেটা ঘুরিয়ে উল্লেখ করেছেন। চিঠিতে সৌরভকে উদ্দেশ্য করে রামন লিখেছেন যে, যদি টিমের এই পরিস্থিতিতে অতীতের কোনও ক্রিকেটারের দম বন্ধ হয়ে আসে, তা হলে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক হিসেবে সৌরভের সেটা দেখা উচিত। ভাবা উচিত, একজন কোচ কি টিমের সংস্কৃতিতে টিমকে প্রাধান্য দিতে চেয়ে খুব বেশি কিছু চাইছে? দ্রাবিড়কে পাঠানো চিঠিতে আবার রামন লিখেছেন, তিনি বিশ্বাস করেন দেশের তরুণ ক্রিকেটারদের কোচিং ম্যানুয়াল বা ট্রেনিং প্রোগ্রাম তৈরি করে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমি। তাই দেশের ক্রিকেটের উন্নতিতে তিনি সব সময় রাজি। দ্রাবিড় বললেই তাঁর মতামতও তিনি দেবেন।

[আরও পড়ুন: প্রত্যেকবার হারেন বিরাট! এবার অধিনায়ককে ‘খেলা’ শেখাতে চান শুভমন]

এদিকে, তাঁর জায়গায় রমেশ পাওয়ারকে কোচ করায় অনেকেই কিন্তু প্রশ্ন তুলছেন, যে ভারতীয় মহিলা টিমের নতুন কোচ করে যাঁকে নিয়ে আসা হল, সেই রমেশ পাওয়ারের সঙ্গে ভারতের মহিলা ওয়ান ডে টিমের অধিনায়ক মিতালি রাজের সম্পর্ক ঠিক ততটাই ‘সুমধুর’, যতটা গুরু গ্রেগের সঙ্গে ছিল ক্যাপ্টেন গাঙ্গুলির! বৃহস্পতিবার রাতে পাওয়ারকে মহিলা টিমের কোচ হিসেবে পুনর্বহাল করার পর ভারতীয় ক্রিকেটমহলের অনেকে বুঝতে পারছেন না, কোন যুক্তিতে এ রকম একটা কাজ করা হল? এঁদের বক্তব্য হল, এক বছর পর পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপ। মিতালিই ভারতের বর্তমান ওয়ান ডে ক্যাপ্টেন। ধরে নেওয়া যায়, তিনিই বিশ্বকাপে টিমকে নেতৃত্ব দেবেন। পাওয়ার সেখানে কোচ থাকলে টিমটা এগোবে কী করে? ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটির প্রধান মদনলাল বলেছেন যে, দু’জনের কোনও অসুবিধে হওয়ার কথা নয়। দেশের স্বার্থেই সব ভুলে এগিয়ে যেতে হবে। কিন্তু মানুষের স্মৃতিশক্তি কি এতটাই দুর্বল? পুরনো দগদগে ঘা কি এত সহজে ভুলে যাওয়া যায়?

অন্যদিকে, আবার, কোচের পদ থেকে অপসারিত হয়ে নিজের ঘনিষ্ঠমহলে বিষাদগ্রস্ত ভাবে রামন বলেছেন যে, কাউকে সরানোর সময় হাজারটা অজুহাত বার করা যায়। পাঁচ—ছ’জন একযোগে তখন উলটো দিকে দাঁড়িয়ে যায়। তারা সমবেত ভাবে বলতে থাকবে, না, না একে দিয়ে চলবে না। কেউ যদি বলে, তোমার গোঁফ নেই, তাই তুমি কোচিং করাতে পারবে না, কী করার থাকতে পারে? নয়, নয় করে পনেরো বছর তিনি ভারতীয় বোর্ডের সঙ্গে বিভিন্ন কাজকর্মে কাটিয়ে ফেললেন। তাই কোনও কিছু তাঁর কাছে নতুন লাগে না।

[আরও পড়ুন: কবে হতে পারে আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলি? ইঙ্গিত মিলল ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকের কথায়]

তবে এসবের মধ্যেই আবার ইংল্যান্ড সফরে টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টির জন্য ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের ঘোষণা করা হল।

ভারতের টেস্ট ও ওয়ানডে দলে রয়েছেন: মিতালি রাজ (অধিনায়ক), স্মৃতি মান্ধানা, হরমনপ্রীত কৌর (সহ অধিনায়ক), পুণম রাউত, প্রিয়া পুনিয়া, দীপ্তি শর্মা, জেমাইমা রডরিগেজ, শেফালি ভার্মা, স্নেহ রানা, তানিয়া ভাটিয়া (উইকেটকিপার), ইন্দ্রাণী রায় (উইকেটকিপার), ঝুলন গোস্বামী, শিখা পাণ্ডে, পূজা বস্ত্রকার, অরুন্ধতী রেড্ডি, পুনম যাদব, একতা বিস্ত, রাধা যাদব।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

ভারতের টি-২০ দলে রয়েছেন: হরমনপ্রীত কৌর (অধিনায়ক), স্মৃতি মান্ধানা (সহ অধিনায়ক), দীপ্তি শর্মা, জেমাইমা রডরিগেজ, শেফালি ভার্মা, রিচা ঘোষ, হরলীন দেওল, স্নেহ রানা, তানিয়া ভাটিয়া (উইকেটকিপার), ইন্দ্রাণী রায় (উইকেটকিপার), শিখা পাণ্ডে, পূজা বস্ত্রকার, অরুন্ধতী রেড্ডি, পুনম যাদব, একতা বিস্ত, রাধা যাদব, সিমরন দিল বাহাদুর।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next