Mukul Roy: ‘ভোটে ভাল ফল করবে তৃণমূল’, পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে রাজনীতিতে ফের সক্রিয় মুকুল রায়?

08:15 PM Nov 09, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তার আগে নদিয়া জেলা সফরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গোষ্ঠীকোন্দল রুখতে জোরাল বার্তাও দিয়েছেন তিনি। সেই মঞ্চেই দেখতে পাওয়া গিয়েছে মুকুল রায়। পরপর দু’দিন ফের দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিতে দেখা গেল তাঁকে। আর তাতেই প্রশ্ন উঠছে পঞ্চায়েত ভোটের আগে কি ফের সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরছেন মুকুল? পাচ্ছেন বড় কোনও দায়িত্ব? যদিও সে সব প্রশ্নের জবাবে জল্পনা জিইয়ে রাখলেন তৃণমূলের ‘চাণক্য’।

Advertisement

পঞ্চায়েত নির্বাচনে কি নতুন কোনও দায়িত্ব পেলেন মুকুল রায় (Mukul Roy)? প্রশ্নের জবাবে কৃষ্ণনগর উত্তরের তৃণমূল বিধায়ক বলেন, “আমি তৃণমূলেই আছি। নতুন করে কোনও দায়িত্ব আমাকে দেওয়া হয়নি।” আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল ভাল ফল করবে বলেও আশাপ্রকাশ করেন তিনি। উল্লেখ্য, আসলে মুকুল রায় তৃণমূলে থাকাকালীন নদিয়া জেলার পর্যবেক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন। গোটা জেলাটিকে হাতের তালুর মতো চেনেন। বিশেষ করে নদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলায় এখনও বহু অনুগামী রয়েছে মুকুলের। আর এই মতুয়া অধ্যুষিত এলাকায় এই মুহূর্তে তৃণমূল (TMC) কিছুটা হলেও বেকায়দায়। ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি যে গুটিকয়েক এলাকায় ভাল ফল করেছিল, নদিয়া দক্ষিণের রানাঘাট লোকসভা এলাকা তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য। স্বাভাবিকভাবেই মমতার রাজনৈতিক সফরে মুকুলের এই উপস্থিতি তাই বেশ ইঙ্গিতবাহী বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

[আরও পড়ুন: DA মামলা: হাই কোর্টে পিছিয়ে গেল রাজ্যের বিরুদ্ধে করা আদালত অবমাননার অভিযোগের শুনানি]

গত ২০১৭ সালের নভেম্বরে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলের তৎকালীন সর্বভারতীয় সম্পাদক মুকুল রায়। কয়েকবছর পর তাঁর ছেলে শুভ্রাংশুও দলবদল করেন। ২০২০ সালে দলের হয়ে ভাল কাজ করার পুরস্কার হিসেবে বিজেপিতে (BJP) সর্বভারতীয় সহ-সভাপতির দায়িত্ব পান। একুশের বিধানসভা ভোটে প্রায় প্রচার ছাড়াই কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্র থেকে বড় ব্যবধানে জেতেন মুকুল রায়। সাড়ে ৩ বছরের ব্যবধানে ফের পুরনো দলের সঙ্গে সখ্য তৈরি হয় তাঁর। পুত্র শুভ্রাংশু রায়ও তৃণমূলে ফেরেন। ‘ঘরের ছেলে’কে স্বাগত জানান খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। মুকুলকে উত্তরীয় পরিয়ে স্বাগত জানান তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)।

Advertising
Advertising

এরপরই মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজের দাবিতে সরব হয় বিজেপি। বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Biman Banerjee) কাছে আবেদন করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। গত ফেব্রুয়ারিতে সেই অভিযোগ খারিজ করে দেন স্পিকার। তিনি জানিয়ে দিলেন মুকুল রায় দলবদল করেননি। তিনি বিজেপিতেই আছেন। সেই মুকুলই যখন বলছেন তিনি তৃণমূলেই আছেন তখন স্বাভাবিকভাবেই তাঁর কথায় যে রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়েছে সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

[আরও পড়ুন: মিষ্টি ঠাকুর! শান্তিপুর রাস উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ ক্ষীরের তৈরি কালীপ্রতিমা]

Advertisement
Next