‘মতুয়ারা অবৈধ হলে নরেন্দ্র মোদিও অবৈধ’, ঠাকুরনগরের সভায় তোপ অভিষেকের

04:44 PM Feb 25, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন কয়েক আগেই ঠাকুরনগরের জনসভায় গিয়ে মতুয়াদের নাগরিকত্ব নিয়ে বড়সড় আশ্বাস দিয়ে এসেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। ঘোষণা করেছিলেন, করোনা পরিস্থিতি মিটলে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করবে কেন্দ্র। তার পালটা সভায় তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করে দিলেন, নাগরিকত্বের জন্য মতুয়াদের কোনও প্রমাণ দেখাতে হবে না। তাঁরা সবাই নাগরিক। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) তাঁদের স্বীকৃতি দিয়েছেন।  

Advertisement

ঠাকুরনগরের সভায় অভিষেক (Abhishek Banerjee) বলেন, “ভোটের আগে নাগরিকত্ব নিয়ে ভাঁওতা দিচ্ছে বিজেপি (BJP)। বলছে ক্ষমতায় এলে নাগরিকত্ব দেবে। ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ হলে নাগরিকত্ব দেবে। ভারতবর্ষ কত কোটি মানুষের বাস? এই ১৩০ কোটি মানুষের ভ্যাকসিন দিতে কত বছর সময় লাগবে? ১৩০ কোটি মানুষের ভ্যাকসিন দিতে বছরের পর বছর কেটে যাবে।” তৃণমূল যুব সভাপতি বোঝানোর চেষ্টা করলেন মতুয়াদের নাগরিকত্বের জন্য আলাদা করে কোনও প্রমাণপত্রের প্রয়োজন নেই। ঠাকুরনগরের সভায় সমবেত জনতার উদ্দেশে প্রশ্ন করলেন,”আপনারা এদেশের নাগরিক কিনা, সেজন্য আপনাদের প্রমাণ দিতে হবে?” সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (Narendra Modi) আক্রমণ করে বললেন, “লোকসভার আগে অনেক কথা বলে আপনাদের ভোট নিয়েছে। আপনারাই এই মানুষগুলোকে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নির্বাচিত করেছেন। আপনারা প্রত্যেকেই নাগরিক। আপনারা যদি অবৈধ হন, তাহলে নরেন্দ্র মোদিও অবৈধ।” অভিষেকের সাফ কথা, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের সম্মান দিয়েছেন। আপনাদের স্বীকৃতি দিয়েছেন। আপনাদের জমির পাট্টা দিয়েছেন। আর কোনও স্বীকৃতির প্রয়োজন।” 

[আরও পড়ুন: জোটের স্বার্থে বেনজির ‘আত্মত্যাগ’, ভাঙড় আসনটিও আব্বাসকে ছাড়ছে বামেরা]

CAA’র পাশাপাশি NRC ইস্যুতেও বিজেপিকে বিঁধেছেন অভিষেক। মতুয়াদের বোঝানোর চেষ্টা করেছেন, এনআরসি আসলে একটা ফাঁদ। অসমের উদাহরণ টেনে তৃণমূল যুব সভাপতি বলছেন, “এনআরসিতে ১৯ লক্ষ নাম বাদ গিয়েছে। এর মধ্যে ১২ লক্ষ হিন্দু বাঙালি। আগামী দিনে আপনাদের সঙ্গেও তাই হবে। এই ফাঁদে কি আপনারা পা দেবেন?” এনআরসি-সিএএ’র পাশাপাশি বহিরাগত, ভুমিপুত্র ইস্যু নিয়েও গেরুয়া শিবিরকে বিঁধেছেন অভিষেক। বোঝাতে চেয়েছেন, বহিরাগতরা মতুয়া তথা নমঃশূদ্রদের পাশে থাকবে না। পাশে থাকবেন শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

Advertisement
Next