লক্ষ্মী এসেছে ঘরে, অন্নপ্রাশনে নাতনিকে মঙ্গলের জমি উপহার ঠাকুমার

05:05 PM Jun 14, 2022 |
Advertisement

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: যুগ বদলাচ্ছে। কন্যাসন্তান হওয়া মানে যে একরাশ দুঃখ নয়, এবার তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন ডায়মন্ড হারবারের এক আইনজীবী। নাতনি হয়েছে, ঘরে লক্ষ্মী এসেছে, সেই খুশিতে খুদের নামে মঙ্গলে এক একর জমি কিনে ফেললেন ঠাকুমা। এটাই শিশুটির অন্নপ্রাশনের উপহার। মহিলার এই অভিনব উপহার চমকে দিয়েছে ছেলে-বউমাকেও।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা শিখা হালদার। ডায়মন্ড হারবার দেওয়ানি আদালতের আইনজীবী তিনি। সম্প্রতি ঠাকুমা হয়েছেন তিনি। ঘর আলো করে এসেছে নাতনি দেবাংশ্রী। আনন্দে আত্মহারা আইনজীবী। গত ১২ জুন ছিল দেবাংশ্রীর অন্নপ্রাশন। সেখানেই ঠাকুমার তরফে অভিনব উপহার পায় খুদে। সোনা, হিরে নয়, ঠাকুমা তাকে দিয়েছে মঙ্গলে এক একর জমি।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পড়ুন: রাজ্যে অশান্তি রুখতে চাই রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ, চিঠি বিজেপি সাংসদের]

কিন্তু কেন এমন উপহার? কীভাবে কিনলেন? শিখা দেবী জানিয়েছেন, তিনি প্রথম থেকেই চেয়েছিলেন স্রোতের বিপরীতে হাঁটতে। অর্থাৎ সোনা, হিরের বাইরে গিয়ে এমন কিছু নাতনিকে দিতে চেয়েছিলেন যা আর পাঁচজনের থেকে আলাদা। ভাবতে ভাবতে সিদ্ধান্ত নেন মঙ্গলে জমি কেনার। তবে মঙ্গলে কেনার কারণ, নাতনির জন্ম মঙ্গলবার। সেই মতো প্রথমে এক জ্যোতিষের সঙ্গে কথা বলেন শিখাদেবী। মনের ইচ্ছে জানান। তাঁর দিক থেকে সবুজ সংকেত মিলতেই যোগযোগ করেন সংশ্লিষ্ট জায়গায়।

জানা গিয়েছে, আবেদনের তিনমাসের পর তা মঞ্জুর হয়। ২৪ ফেব্রুয়ারি কাগজপত্র হাতে পান তিনি। তারপর থেকে ব্যাপারটা গোপনই রেখেছিলেন। ১২ জুন বিষয়টি প্রকাশ্যে আনেন। মহিলার এই উপহারে আপ্লুত ছেলে দেবায়ন ও বউমা পিয়ালী। দেবায়ন বলেন, “মায়ের উদ্যোগকে সাধুবাদ। গোটা নারীজাতির প্রতিসম্মান জানালেন।” শিখা দেবীর এই সিদ্ধান্ত যে সমাজের মধ্যে একটা দৃষ্টান্ত তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

[আরও পড়ুন: পানিহাটি থেকে ফিরল বৃদ্ধ দম্পতির নিথর দেহ, একসঙ্গে হল সৎকার, শোকে পাথর পরিবার]

Advertisement
Next