ঝাড়খণ্ডে সেতুর রেলিং ভেঙে নদীতে পড়ল বাস, মৃত্যু কমপক্ষে ৭ জনের

09:37 PM Sep 17, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেতুর রেলিং ভেঙে নদীতে পড়ল যাত্রীবাহি বাস। ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) হাজারিবাগে (Hazaribagh) ভয়ংকর দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৭ জনের। ৪৬ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়েই উদ্ধার কাজে নামে প্রশাসন। আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। হাজারিবাগের দুর্ঘটনায় টুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

Advertisement

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গিরিডি (Giridih) থেকে রাঁচি (Ranchi) যাচ্ছিল বাসটি। হাজারিবাগের তাতিঝরিয়ার সিয়ানে নদীর সেতু থেকে সেটি পড়ে যায়। সেতুর উপরে উঠে কোনওভাবে নিয়ন্ত্রণ হারান চালক। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এরপর বাসটি সেতু থেকে সটান নিচে পড়ে যায়। বাসে ৬০ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাঁদের মধ্যে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে ২ জন মহিলা বলেও জানা গিয়েছে। ভয়াবহ দুর্ঘটনায় ৪৬ জন আহত হয়েছেন।

[আরও পড়ুন: লেন্সের কভার না সরিয়েই ছবি তুলছেন প্রধানমন্ত্রী! ব্যাপারটা কী?]

বাস দুর্ঘটনার খবর পাওয়া মাত্র উদ্ধারকাজে নামে প্রশাসন। তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ ও অন্য উদ্ধারকারী দল। গ্যাস কাটারের সাহায্যে আহত যাত্রীদের বাস থেকে বের করা হয়। জখমদের দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে পুলিশ। এদিকে হাজারিবাগের বাস দুর্ঘটনায় টুইট করে শোকবার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। তিনি লেখেন, “ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগ জেলায় বাস দুর্ঘটনায় প্রাণহানিতে শোকাহত। দুঃসময়ে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। প্রার্থনা করছি আহতরা যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে।”

সম্প্রতি পর পর দু’দিন ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনা ঘটে কাশ্মীরে। জম্মু ও কাশ্মীরের (Jammu and Kashmir) পুঞ্চ (Poonch) উপত্যকায় বাস দুর্ঘটনায় (Bus Accident) ১১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গত বৃহস্পতিবার রাজৌরি জেলায় (Rajouri District) বাস দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। রাজৌরির দুর্ঘটনার খবর জানতে পেরে শোকপ্রকাশ করেন জম্মু ও কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা (Manoj Sinha)। সংবাদ সংস্থা জানায়, বাসটি পুঞ্চ থেকে জম্মু যাচ্ছিল। মাঝপথে ভিমবের গালি এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায় বাসটি। এতেই কমপক্ষে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ২৫ জন। ঘটনার খবর পেয়েই পুলিশ ও সেনা উদ্ধার কাজে নামে। তার আগেই অবশ্য স্থানীয় মানুষ দুর্ঘটনাগ্রস্তদের সাহায্যে হাত বাড়ায়।

Advertising
Advertising

Advertisement
Next