Advertisement

7th Pay Commission: সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর, DA বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার

03:50 PM Jul 14, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর। মহার্ঘ ভাতা বা DA বৃদ্ধির প্রস্তাবে ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা আগে ১৭ শতাংশ পর্যন্ত DA পেতেন। ১১ শতাংশ বাড়িয়ে তা করা হল ২৮ শতাংশ। এর ফলে লক্ষ লক্ষ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী এবং পেনশনভুগি উপকৃত হবেন।

Advertisement

গত একবছর ধরেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ বৃদ্ধির ব্যাপারটি আটকে ছিল। করোনা মহামারীর (Coronavirus) জন্য বেতন কমিশনের প্রস্তাব সত্ত্বেও গত একবছরেরও বেশি সময় ধরে সেই প্রস্তাবে ছাড়পত্র দেয়নি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই একবছরে অন্তত ৩ বার ডিএ বৃদ্ধির প্রস্তাব আসে। সেই ৩ বারের হিসাব যোগ করেই এককালীন ১১ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই বৃদ্ধির ফলে যারা এতদিন ১৭ শতাংশ পর্যন্ত DA পেতেন, তাঁরা একলাফে ২৮ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা পাবেন। যদিও, এই বর্ধিত DA কবে থেকে কার্যকর হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে সেপ্টেম্বর থেকেই বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা পেতে পারেন সরকারি কর্মী এবং পেনশনভুগিরা। তবে, এই প্রস্তাবের এখনও বেশ কিছু জায়গায় ছাড়পত্র পাওয়া বাকি। সেক্ষেত্রে সেপ্টেম্বর থেকে নতুন হারে DA পাওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে, তাতে চিন্তার কোনও কারণ নেই। নতুন ডিএ যেদিনই কার্যকর হোক না কেন, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ১ জুলাই থেকেই এরিয়ার পাবেন।

[আরও পড়ুন: কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন প্রশান্ত কিশোর? গান্ধীদের সঙ্গে বৈঠকের পরই জোরাল জল্পনা]

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের ফলে উৎসবের মরশুমে একদিকে যেমন লক্ষ লক্ষ সরকারি কর্মচারি উপকৃত হবেন, তেমনি অর্থনীতিও বেশ খানিকটা চাঙ্গা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। উৎসবের মরশুমে হাতে বর্ধিত বেতন পেলে সরকারি কর্মীরা খরচের পরিমাণ বাড়াবেন। ফলে বাজারে চাহিদা বাড়বে। যা পরোক্ষে উৎপাদন এবং জিডিপি (GDP) বাড়াতে সাহায্য করবে বলে ধারণা অর্থনীতিবিদদের। সেদিক থেকে দেখতে গেলে নরেন্দ্র মোদির নতুন মন্ত্রিসভার এই সিদ্ধান্ত বেশ প্রশংসনীয়। প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতির জন্য একবছর পর প্রথমবার সশরীরে মন্ত্রিসভার পূর্ণাঙ্গ বৈঠকে হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। এর আগে শেষবার গতবছর ৭ জুলাই সশরীরে মন্ত্রিসভার পূর্ণাঙ্গ বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement
Next