Mumbai: প্রবল বৃষ্টির জেরে ধসে মৃত্যু বেড়ে ২২, আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

10:52 AM Jul 18, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত টিনসেল টাউন মুম্বই (Mumbai)। তথৈবচ অবস্থা মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন এলাকার। আর একনাগাড়ে বৃষ্টির জেরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল মুম্বইয়ে। যার জেরে মৃত্যু হল কমপক্ষে ২২ জনের। এখনও নিখোঁজ বেশ কয়েকজন। ভগ্নস্তূপের নিচে বেশ কয়েকজনের আটকে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মৃতের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি। 

Advertisement

শনিবার থেকে একনাগাড়ে বৃষ্টি (Heavy Rain) শুরু হয় মুম্বইয়ে। রাত গড়িয়ে রবিবার ভোর হয়ে গেলেও বৃষ্টি থামেনি। আর রাতভর বৃষ্টির জেরে প্লাবিত মু্ম্বইয়ের বিস্তীর্ণ এলাকা। জলের নিচে বহু এলাকা। থমকে লোকাল ট্রেন পরিষেবাও। এর মাঝেই শনিবার রাত ও রবিবার সকালে ঘটে গেল জোড়া দুর্ঘটনা। যার জেরে মৃত্যু হল অন্তত ১৭ জনের।

 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ইদ উপলক্ষে লকডাউনে ছাড় বামশাসিত কেরলের, তুঙ্গে বিতর্ক]

প্রথম ঘটনাটি ঘরে চেম্বুরে। ওই এলাকার ভরতনগর বসতির ঝুপড়ির উপর হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে একটি পাঁচিল। চাপা পড়ে যায় ঝুপড়ির বহু বাসিন্দা। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, ওই এলাকায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভগ্নস্তূপের নিচে কমপে ৬-৮ জনের আটকে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রবল বৃষ্টি মাথায় নিয়ে উদ্ধারকার্যে নেমেছে এনডিআরএফ। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় পাঁচিলের ভগ্নাবশেষ সরানো ও নিখোঁজদের খোঁজার কাজ চলছে।

 

[আরও পড়ুন: ‘বেদে লেখা নেই, তাই চারধাম যাত্রার লাইভ স্ট্রিমিং করা যাবে না’, ঘোষণা উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর]

এই দুর্ঘটনার রেশ কাটার আগেই রবিবার ভোররাতে ভিখরোলি এলাকায় একতলা একটি বাড়ি ধসে যায়। সেই ধ্বংসস্তূপ থেকে ৫ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। ভেঙে পড়া অংশের নিচে আর কেউ আটকে রয়েছে কিনা তা দেখা হচ্ছে। উদ্ধারকার্য এখনও চলছে বলে জানিয়েছে বিএমসি। সবমিলিয়ে প্রবল বর্ষণে কার্যত জলবন্দি মুম্বই। আর সেই বৃষ্টির জেরে একাধিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে ‘আমচি মুম্বই’য়ে।

এদিকে ১৫ জনের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী দুর্গতদের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, মৃতদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা এবং আহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য করা হবে।

 

Advertisement
Next