Advertisement

পাতিদার নেতাতেই আস্থা, গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল

04:56 PM Sep 12, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জল্পনার অবসান। বিজয় রূপানির জায়গায় গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রী হলেন ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল (Bhupendra Patel)। রবিবার নয়া মুখ্যমন্ত্রী ঠিক করতে বৈঠকে বসে বিজেপির (BJP) পরিষদীয় দল। সেখানেই ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলের নামে সিলমোহর পড়ে।

Advertisement

এদিন বিজেপি বিধায়কদের নিয়ে পরিষদীয় দলের বৈঠকে ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলের নাম পরিষদীয় দলনেতা পদে প্রস্তাব করেন সদ্য ইস্তফা দেওয়া প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি। আর শেষপর্যন্ত তাতেই সবাই সম্মত হন। আর তাই গুজরাটের নয়া মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসতে চলেছেন ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলই। প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে বিধানসভা নির্বাচনে ঘাটলোডিয়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ১ লক্ষ ১৭ হাজার ভোটে জয়লাভ করেন। যা কিনা ওই ভোটে সর্বোচ্চ মার্জিন। বর্তমান পরিস্থিতিতে আগামী বছরই গুজরাটে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বিজয় রূপানির জায়গায় এই পাতিদার নেতার উপরই ভরসা রাখল বিজেপি। শোনা যাচ্ছে, তিনি আবার আনন্দীবেন প্যাটেলেরও ঘনিষ্ঠ।

 

[আরও পড়ুন: দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন রামচন্দ্র! পড়ানো হবে মধ্যপ্রদেশের নতুন সিলেবাসে]

এর আগে শনিবারই আচমকা সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়ার কথা জানান বিজয় রূপানি। দল তাঁকে সংগঠনে ফেরার নির্দেশ দেওয়াতেই এই সিদ্ধান্ত, বলছেন রূপানি। ইস্তফার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে তিনি বলেন, “দল আমাকে যা দায়িত্ব দিয়েছে অনুগত সৈনিক হিসাবে আমি তা পালন করেছি। আমি গুজরাটের (Gujarat) জনতাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই গুজরাটে গত পাঁচ বছরে যে নির্বাচন বা উপনির্বাচন হয়েছে, সবকিছুতেই আমাদের জেতানোর জন্য। আমি এবার সংগঠনের দায়িত্ব সামলাব।” কিন্তু কেন ইস্তফার সিদ্ধান্ত? তা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি রূপানি। তাঁর দাবি, বিজেপিতে এই ধরনের পরিবর্তন অস্বাভাবিক কিছু নয়। তিনি আগামী দিনেও বিজেপি (BJP) নেতৃত্বের অনুগত সৈনিক হিসাবেই কাজ করবেন।

রূপানির উত্তরসূরি কে হবেন, সেটা নিয়েই এরপর জল্পনা শুরু হয়ে যায়। শোনা যাচ্ছিল গুজরাটের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন, বিদায়ী উপমুখ্যমন্ত্রী নীতীন প্যাটেল (Nitin Patel), কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালা এবং মনসুখ মাণ্ডব্য। এছাড়াও ছিলেন বিদায়ী কৃষিমন্ত্রী আর সি ফালড়ু, বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি সি আর পাটিলও। কিন্তু সবাইকে পিছনে ফেলে মুখ্যমন্ত্রী হলেন পতিদার নেতা ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলই।

[আরও পড়ুন: ‘পুলিশের পক্ষে সব জায়গায় থাকা সম্ভব নয়’, মুম্বই ধর্ষণ কাণ্ডে কমিশনারের মন্তব্যে বিতর্ক তুঙ্গে]

Advertisement
Next