কর্ণাটকে বাস ও পণ্যবাহী গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ, জীবন্ত দগ্ধ ৭

01:42 PM Jun 03, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কর্ণাটকে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা। বাস ও পণ্যবাহী গাড়ির সংঘর্ষে জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত অন্তত সাত। আহত হয়েছেন আরও ১৬ জন। আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।

Advertisement

জানা গিয়েছে, শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের (Karnataka) কালবুর্গি জেলার কমলাপুরের। বাসটি গোয়া (Goa) থেকে হায়দরাবাদ (Hyderabad) যাচ্ছিল। মাঝপথে একটি পণ্যবাহী গাড়ির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় বাসটির। ফলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ব্রিজ থেকে প্রায় নিচে পড়ে যায় সেটি। ধাক্কার চোটে বাসটির জ্বলানির ট্যাঙ্ক ফুটো হয়ে যায়। তারপরই দাউদাউ করে জ্বলে উঠে আগুন। পুড়ে মৃত্যু হয় সাতজনের। অন্তত ১৬ জন যাত্রী আহত হয়েছেন, তাঁদের কালবুর্গির একটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। কালবুর্গির পুলিশ সুপার ইশা পন্থ জানিয়েছেন যে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কারণে আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

[আরও পড়ুন: ‘প্রত্যেক মসজিদে শিবলিঙ্গের অস্তিত্ব খোঁজার দরকার কী?’, জ্ঞানবাপী বিতর্কে উলটো সুর RSSপ্রধানের]

Advertising
Advertising

জানা গিয়েছে, বেসরকারি বাসটি গোয়ার ‘অরেঞ্জ’ নামের একটি সংস্থার। দুর্ঘটনার সময় বাসটিতে ৩৫ জনেরও বেশি যাত্রী ছিলেন। সংঘর্ষের পরপরই বাসটিতে আগুন ধরে যাওয়ায় স্থানীয়রা বাসটির ধারে কাছে যেতে পারেননি। তাঁরাই পুলিশ ও দমকল বিভাগে খবর দেয়। তারপর পুলিশ ও দমকল গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে সাতজন যাত্রী প্রাণ হারান। বাসটিও কার্যত পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে বলে খবর।

উল্লেখ্য, গত মার্চ মাসেও কর্ণাটকের টুমকুর জেলার পাভাগাদা এলাকায় একটি বাস দুর্ঘটনাগ্রীসটি হয়। ওই ঘটনায় প্রাণ হারান ৮ জন। মৃতদের মধ্যে দু’জন পড়ুয়া ছিল বলেও জানা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছিলেন, অতিরিক্ত যাত্রী বহন করছিল বাসটি। দ্রুত গতিতে চালানোর সময় নিয়ন্ত্রণ হারান চালক। যার জেরে যাত্রী-সহ রাস্তার ধারে উলটে যায় বাসটি।

[আরও পড়ুন: বিতর্কিত ইসলামিক সংগঠন পিএফআইয়ের পিছনে চিন? আসত বিপুল অর্থ!]

Advertisement
Next