Advertisement

শাহরুখ খানকে অযোধ্যা মামলার মধ্যস্থতাকারী হিসেবে চেয়েছিলেন বোবদে! দাবি আইনজীবীর

12:23 PM Apr 24, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অযোধ্যা (Ayodhya) মামলায় মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় থাকুন শাহরুখ খান (Shah Rukh Khan)। এমনটাই চেয়েছিলেন ভারতের সদ্য ‘প্রাক্তন’ প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে (SA Bobde)। শুক্রবার বোবদের এই ইচ্ছার কথা জানালেন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বিকাশ সিংহ। গতকালই অবসর নিলেন বোবদে। তার আগে আয়োজিত হয়েছিল একটি ভারচুয়াল ফেয়ারওয়েল অনুষ্ঠানের। সেখানেই এই অজানা কথাটি সকলের সামনে তুলে ধরলেন বিকাশ। প্রসঙ্গত, অযোধ্যা মামলার রায়দানকারী বিচারপতিদের বেঞ্চে ছিলেন বোবদে।

Advertisement

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় বিকাশ বলেন, ‘‘অযোধ্যা মামলা নিয়ে একটি গোপন কথা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করতে চাই। এতদিন এটা আমার আমার বিচারপতি বোবদের মধ্যেই ছিল। শুনানির শুরুর দিকে উনি গভীর ভাবে বিশ্বাস করতেন মধ্যস্থতার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান হতে পারে। সেই সময়ই তিনি আমাকে বলেছিলেন, শাহরুখ খান কি মধ্যস্থতার অংশ হতে রাজি হবেন? আমি শাহরুখের সঙ্গে এই নিয়ে কথাও বলেছিলাম। উনিও অত্যন্ত আগ্রহী ছিলেন মধ্যস্থতার বিষয়ে। ওঁর বিশ্বাস ছিল, এভাবেই আমাদের দেশে হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতি বজায় রাখা সম্ভব।’’

[আরও পড়ুন: করোনায় মৃতদের গণচিতা দিল্লিতে, মে মাসে দৈনিক মৃত্যু পেরোতে পারে ৫ হাজার, আশঙ্কা গবেষকদের]

এবিষয়ে শাহরুখের একটি পরামর্শের কথাও তুলে ধরেন বিকাশ। তাঁর কথায়, ‘‘ওঁর পরামর্শ ছিল হিন্দু মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করুন কোনও খ্যাতনামা মুসলিম। এবং একই ভাবে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করুন কোনও বিখ্যাত হিন্দু ব্যক্তিত্ব। দুর্ভাগ্যবশত, মধ্যস্থতার ব্যাপারটা পরে আর এগয়নি।’’

আলোচনার মধ্যে দিয়ে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি বিবাদ মেটাতে ২০১৯ সালে সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ তিন জন মধ্যস্থতাকারীর একটি কমিটি গড়েছিল। তাতে ছিলেন, সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি এফ এম আই কলিফুল্লা, অধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ত্ব শ্রী শ্রী রবিশংকর এবং প্রবীণ আইনজীবী শ্রীরাম পঞ্চু। শেষ পর্যন্ত এতে কাজ না হওয়ায় শুরু হয় শুনানি। ৪০ দিনের শুনানির শেষে ২০১৯ সালের নভেম্বরে সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যার বিতর্কিত জমি মামলার রায় দেয়। পাঁচ বিচারপতিদের সেই বেঞ্চের অন্যতম সদস্য ছিলেন এসএ বোবদে। পরে তিনি দেশের প্রধান বিচারপতি হন। শুক্রবার অবসর নিলেন তিনি। তাঁর স্থাভিষিক্ত হলেন বিচারপতি এনভি রামানা (NV Ramana)। শনিবারই তিনি শপথ নিলেন দেশের নতুন প্রধান বিচারপতি হিসেবে।

[আরও পড়ুন: করোনা চিকিৎসায় জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োগ করা যাবে ‘ভিরাফিন’, ছাড়পত্র দিল DCGI]

Advertisement
Next