Advertisement

যেভাবেই হোক সর্বত্র অক্সিজেন সরবরাহ করুন, মোদিকে চিঠি সদ্য পুত্রহারা ইয়েচুরির

08:32 PM Apr 25, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সদ্য নিজের ছেলেকে হারিয়েছেন। শোকে বিহ্বল হয়েও কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে শোনা যায়নি তাঁকে। বরং, সংকটকালে যাঁরা যাঁরা পাশে ছিলেন, তাঁদের ধন্যবাদই জানিয়েছেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)। তবে, স্বজন হারানোর বেদনা ভালই বুঝতে পারছেন ইয়েচুরি। ধৈর্যের বাঁধ ভেঙেছে তাঁর। হয়তো সেকারণেই চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (Narendra Modi) অনুরোধ করলেন, যে কোনও মূল্যে সারাদেশের সমস্ত হাসপাতাল এবং রোগীদের চিকিৎসার জন্য নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেনের ব্যবস্থা করুন। কোভিড মোকাবিলায় সরকারের উদাসীনতাকে কাঠগড়ায় তুলে ক্ষোভও প্রকাশ করলেন সিপিএম নেতা।

Advertisement

‘বেদনা, কষ্ট এবং যন্ত্রণা’ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে সিপিএম নেতা দাবি করেছেন, “অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দুটি বিষয় নিশ্চিত করা প্রয়োজন। প্রথমত, যে কোনও মূল্যে সারাদেশের সমস্ত হাসপাতাল এবং রোগীদের চিকিৎসার জন্য নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেনের ব্যবস্থা করুন। সমস্ত রাজ্য সরকারকে একত্রিত করে বিনামূল্যে সর্বজনীন টিকাদান কর্মসূচি নিন। প্রয়োজনে ভারতীয় টিকার উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি যে যে উৎস থেকে সম্ভব, সেই সেই উৎস টিকা আমদানি করুন।” ইয়েচুরির অনুরোধ, দেশে টিকাকরণের জন্য অর্থের যাতে ঘাটতি না হয়, তা নিশ্চিত করতে সেন্ট্রাল ভিস্তা (Central Vista) প্রকল্প বাতিল করারও অনুরোধ করেছেন ইয়েচুরি। তাঁর অনুরোধ ওই প্রকল্প বাতিল করে টিকাকরণের জন্য কেন্দ্র ৩৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করুক।

[আরও পড়ুন: অক্সিজেনের অভাবে উত্তরপ্রদেশে মর্মান্তিক মৃত্যু সদ্যোজাত যমজের, চাঞ্চল্য হাসপাতাল চত্বরে]

চিঠিতে বর্তমান করোনা পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রকে কাঠগড়ায় তুলেছেন সিপিএম (CPM) সাধারণ সম্পাদক। তাঁর দাবি, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উপর সুনামির মতো আছড়ে পড়েছে। আর সেটা কেন্দ্রের উদাসীনতার জন্যই। সীতারামের দাবি, এই পরিস্থিতিতে সকলকে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়ার নৈতিক দায় প্রধানমন্ত্রীর। তিনি বলছেন, “আপনি যদি আমাদের সহযোদ্ধাদের অক্সিজেন এবং ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে না পারেন, আপনার সরকার ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার হারাবে।” ইয়েচুরির চিঠির ছত্রে ছত্রে স্বজন হারানোর বেদনা বোঝা গিয়েছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। 

Advertisement
Next