‘কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা ফেরানো সম্ভব নয়’, আজাদের গলায় বিজেপির সুর?

08:28 PM Sep 11, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কংগ্রেসত্যাগী গুলাম নবি আজাদ (Ghulam Nabi Azad) কি শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে (BJP) যোগ দিতে চলেছেন? রবিবার কাশ্মীরের (Jammu And Kashmir) বারামুলার জনসভা থেকে ৩৭০ ধারা (Article 370) নিয়ে তিনি যে মন্তব্য করেছেন, তারপর রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ এমনটাই মনে করছেন। এদিন আজাদ বলেন, “৩৭০ ধারার নামে মানুষকে ভুল বোঝাতে পারব না আমি। এটা ফেরানো যাবে না।” যদিও পরে এই বিষয়ে সুর সামান্য নরম করেন তিনি।

Advertisement

কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আজাদ বারামুলায় নিজের ভাষণে আঞ্চলিক দলগুলিকে আক্রমণ করেন। তাঁর মতে উপত্যকার মানুষকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভুলপথে চালিত করছে আঞ্চলিক দলগুলি। আজাদ বলেন, “ভোটের জন্য আপনাদের ভুল বোঝাতে পারব না আমি। ৩৭০ ধারা সহজে ফেরানো যাবে না। (জম্মু ও কাশ্মীরে) ৩৭০ ধারা পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করতে হলে সংসদে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রয়োজন।” আজাদ আরও বলেন, “প্রত্যেক নির্বাচনে কংগ্রেস আরও দুর্বল হয়ে পড়ছে। সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার মতো বিরোধী দলই নেই, যারা ৩৭০ ধারা ফেরাতে সক্ষম হতে পারে।”

[আরও পড়ুন: বিলকিসের ধর্ষকদের সংবর্ধনা দিয়েছে VHP! শাজিয়া ইলমির কথায় রেগে আগুন সংঘ পরিবার]

এইসঙ্গে আজাদ মনে করিয়ে দেন জম্মু ও কাশ্মীরে রাজনৈতিক শোষণের ফলে অন্তত এক লক্ষ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। অনাথ হয়েছে পাঁচ লক্ষ শিশু। ফলে নতুন করে মিথ্যে প্রতশ্রুতি দিতে রাজি নন তিনি। ৩৭০ প্রত্যাহার সম্ভব নয় বললেও ১০ দিনের মধ্যে নিজের নতুন রাজনৈতিক দলের নাম ঘোষণা করবেন বলেও জানান আজাদ। জম্মু ও কাশ্মীরের মর্যাদা পুনরুদ্ধার, কর্মসংস্থান, এবং বাসস্থান সুরক্ষিত রাখতে তাঁকে ভোট দেওয়ার দাবি জানিয়ছেন প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: অর্থের অহঙ্কার! ফের নয়ডার আবাসনে নিরাপত্তারক্ষীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার, সপাটে চড় মহিলার]

উল্লেখ্য, জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যকে বৃহত্তর স্বায়ত্তশাসনের অধিকার দিত সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ। ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট যা প্রত্যাহার করেছিল কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। এরপর থেকেই উপত্যকার সমস্ত বিরোধী দলের রাজনৈতিক দলের প্রধান অ্যাজেন্ডা হল বিশেষ মর্যাদা পুনরুদ্ধারের দাবি। এদিন সেই দাবিকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি বলে আঞ্চলিক দলগুলিকে অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন আজাদ।    

Advertisement
Next