‘এখনও বাবা রামদেবের চেয়ে বেশি পোশাক পরি: গাইয়া সোফিয়া

05:29 PM Sep 26, 2016 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ন্যাস যে তাঁর ভেক, এ অভিযোগ প্রতিনিয়ত লেগেই থাকে! তিতিবিরক্ত হয়ে শেষ পর্যন্ত তাই মুখ খুলেছেন গাইয়া মাদার সোফিয়া। যাঁরা সন্ন্যাসিনী হয়েও তাঁর খোলামেলা পোশাক পরার সমালোচনা করেন, তাঁদের এক হাত নিলেন তিনি!
সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে যোগাসনের একটি ছবি পোস্ট করেছেন সন্ন্যাসিনী। সেখানে দেখা যাচ্ছে তাঁর উন্মুক্ত বক্ষবিভাজিকা, সুগোল উরুর সৌন্দর্য। সেই ছবির সঙ্গেই লিখেছেন তিনি, ”নিজেকে সেই উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই, যেখানে সমালোচনা স্পর্শ করে না! যাঁরা শরীর প্রদর্শনের পরিপন্থী, তাঁদের শুধু একটাই কথা বলতে পারি! আমি এখনও বাবা রামদেবের চেয়ে বেশি পোশাক পরি!”
হঠাৎ কেন বাবা রামদেবকে উদ্দেশ্য করে এহেন কটাক্ষ?

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

Take yourself so high that you become the light of divinity. Anyone who criticizes any skin show.. I am still wearing more clothes than Baba Ram Dev. Our Gods have always been beautiful. Anyone who judges and criticizes, needs to clean their minds and look at this picture, and indeed every woman as a sacred being of creation. A Goddess. When time began a woman on her period was considered sacred. Her blood was sacred. It was the sign of fertility. Now women hide the fact they are menstruating, and are considered unclean. Ask yourself why? The negative, masculine, left brained archon energy did this. The archons are now gone. Remove the programming of associating negativity with women. It is time. The sacred feminine energy is back and is here to stay in all her power, glory and fertility of the earth and LOVE. Namaste Salaam Gaia Mother Sofia #selfie #yoga #goddess #love #yoga

A photo posted by Gaia Mother Sofia (@sofiahayat) on

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});


আসলে গাইয়া মাদার সোফিয়া বলতে চেয়েছেন লিঙ্গবৈষম্যের কথা। সন্ন্যাস যিনি নিয়েছেন, তিনি আদ্যন্তই সন্ন্যাসী। তাঁর পোশাক নিয়ে সমালোচনা ওঠার কথাই নয়! তাও যে উঠছে, সেই ব্যাপারেই রেগে গিয়েছেন তিনি।
কিন্তু, এখানেই শেষ নয়। সন্ন্যাসিনীর বক্তব্য, সমাজ দিনে দিনে নারীদের কোণঠাসা করেছে। ”প্রাচীনকালে যখন কোনও নারী ঋতুমতী হত, তখন তাকে বলা হত পবিত্র! অথচ আজ আমরা ঋতুমতী নারীদের কলুষিত মনে করি। তাঁদের উপাসনার অধিকার দিই না! এসব পুরুষতন্ত্রের জোরজুলুম ছাড়া আর কী?” প্রশ্ন তুলেছেন তিনি!
কিন্তু, এ কি সন্ন্যাসিনীর সমাজভাবনা? না কি নিজেকে প্রচারের আলোয় আরও বেশি করে নিয়ে আসার একটা হাতিয়ার?
আপনাদের কী মনে হয়?

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next