Advertisement

সীমান্তে সংঘাতের আবহে পাকিস্তানের সঙ্গে বন্দিদের নামের তালিকা বিনিময় ভারতের

06:50 PM Jan 01, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে শুক্রবার দুই দেশের জেলে বন্দি শতাধিক নাগরিকের তালিকা হস্তান্তর করা হয়। একটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তির (Bilateral agreement) ভিত্তিতে প্রতি বছর ১ জানুয়ারি ও ১ জুলাই এই তালিকা হস্তান্তরের নিয়ম রয়েছে। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘আমরাই জিতেছি’, কর্ণাটক পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয় ঘোষণা বিজেপি-কংগ্রেস দুইয়েরই ]

এই দ্বিপাক্ষিক চুক্তির ভিত্তিতে ভারত (India) আজ পাকিস্তানের (Pakistan) ৩৪০ জন বন্দির তালিকা তুলে দেয় পাকিস্তানি আধিকারিকদের হাতে। অন্যদিকে পাকিস্তানের তরফ থেকেও সে দেশে বন্দি ৩১৯ জন ভারতীয় নাগরিকের তালিকাও তুলে দেওয়া হয় সেখানকার ভারতীয় দূতাবাসের কাছে। পাকিস্তানের তরফে ভারতকে যে তালিকা দেওয়া হয়েছে তাতে ৪৯ জন সাধারণ নাগরিক-সহ ২৭০ জন মৎস্যজীবীর নাম রয়েছে। অপর দিকে, ভারতের তরফেও দিল্লিতে অবস্থিত পাক দূতাবাসেও তুলে দেওয়া হয় বন্দিদের তালিকা। পাকিস্তানের হাতে যে তালিকা তুলে দেওয়া হয়েছে, তাতে ২৬৩ জন সাধারণ নাগরিক-সহ ৭৭ জন মৎস্যজীবীর নামও রয়েছে। 

২০০৮ সালের ২১ মে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত কনসুলার অ্যাকসেস (Consular Access) চুক্তির ভিত্তিতে এই তালিকা প্রতি বছরই আদানপ্রদান করা হয়। দুই দেশের সম্পর্কে ইদানীং কালে বহু টানাপোড়েন থাকলেও বছরে দু’বার এই বন্দি তালিকা আদান প্রদানের ক্ষেত্রে কোনও বাধা আসেনি।

এই মুহূর্তে সীমান্ত সংঘাত নিয়ে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক একেবারে তলানিতে। পুলওয়ামা হামলার পেছনে পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ মদত রয়েছে বলে অভিযোগ করে ভারত। এই হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হন। সারা দেশ জুড়ে ওঠে প্রতিবাদের ঝড়। পরিবর্তে বালাকোটে (Balakote) বায়ুসেনার (Indian Air Force) বিমান হামলায় খতম হয় শতাধিক জঙ্গি। যদিও তা মানতে একেবারেই রাজি হয়নি পাকিস্তান। এছাড়াও ভারত সরকারের  জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া ও রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলে ভাগ করার বিরুদ্ধেও তীব্র প্রতিবাদ জানায় পাকিস্তান। সেই থেকে এখনও অবধি স্বাভাবিক হয়নি দুই দেশের সম্পর্ক।       

[আরও পড়ুন: ভারতীয় সেনার মানবাধিকার শাখার দায়িত্বে মেজর জেনারেল গৌতম চৌহান] 

Advertisement
Next