Advertisement

লখিমপুর কাণ্ড: নির্দোষ হওয়ার প্রমাণ দিতে ব্যর্থ! ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে ধৃত মন্ত্রীপুত্র

09:04 AM Oct 10, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লখিমপুর খেরির (Lakhimpur Kheri Violence) অশান্তির মূল অভিযুক্ত আশিস মিশ্রকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠাল আদালত। যদিও তাকে নিজেদের হেফাজতে চেয়েছে পুলিশ। সোমবার সেই সংক্রান্ত শুনানি হওয়ার কথা। উত্তরপ্রদেশে ‘কৃষক হত্যা’র ৭ দিনের মাথায় শনিবার মূল অভিযুক্ত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্র টেনির ছেলে গ্রেপ্তার হয়। টানা ১২ ঘণ্টা তাকে জেরার করছিল উত্তরপ্রদেশ সরকারের ‘সিট’। জেরায় তিনি অসহযোগিতা করায় শেষপর্যন্ত তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযোগ, জেরায় অধিকাংশ প্রশ্নই এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে সে। রবিবার সকালে তাকে বিশেষ আদালতে তোলা হলে বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

Advertisement

গত রবিবার গাড়ি চাপা পড়ে কৃষকমৃত্যুর ঘটনার পর থেকেই তার গ্রেপ্তারির দাবিতে সরব হন বিরোধীরা। শুক্রবারই তাঁর পুলিশের কাছে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে সমন এড়িয়ে গিয়েছিল। শুক্রবার বিকেলেই এই সংক্রান্ত মামলায় উত্তরপ্রদেশ সরকারের ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা। এতেই চাপ বাড়ে কেন্দ্র ও রাজ্যের বিজেপি সরকারের উপর।

[আরও পড়ুন: তথ্য ফাঁসের ঘটনায় এবার খোদ সিবিআই প্রধানকে তলব করল মুম্বই পুলিশ]

শনিবার সকালে কড়া পুলিশি পাহারার মাঝে আশিস হাজির হয় লখিমপুর থানায়। টানা ১২ ঘণ্টা জেরার পর রাত ১১টা নাগাদ মন্ত্রীপুত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়। সিট-এর প্রধান উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিআইজি উপেন্দ্র আগরওয়াল রাতে জানান, তদন্তে অসহযোগিতা ও জেরায় সমস্ত প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়ার অভিযোগে আশিস মিশ্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Advertising
Advertising

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জেরায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পুত্র ৩ অক্টোবর অর্থাৎ ঘটনার দিন তার গতিবিধি সম্পর্কে অকাট্য প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হয়েছে। বিশেষত, ঘটনার সময় দুপুর ২.৩৬ থেকে ৩.৩০-এর মধ্যে সে ঠিক কোথায় ছিলেন সেটা স্পষ্ট জানাতে পারেনি। তার মোবাইলটি তদন্তের স্বার্থে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই আশিসের গাড়িতে থাকা লব কুশ এবং আশিস পাণ্ডে নামে দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

লখিমপুর থানায় আশিস মিশ্রকে যখন জেরা করা হয়, তখন অদূরে লখিমপুর শহরের ভিতরেই তার সংসদীয় কার্যালয়ে বসেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্র। রাতে আশিসের গ্রেপ্তারের খবর ছড়িয়ে পড়তেই অজয় মিশ্রর দফতরের সামনে বহু বিজেপি সমর্থক জড়ো হয়। তারা শ্লোগান দিতে থাকে। অজয় মিশ্র তাঁর সমর্থকদের শান্ত করে বলেন, “আশিস কোনও দোষ করেনি। আদালতে নির্দোষ প্রমাণিত হবে।” ৩৫ বছর বয়সী আশিস তার বাবার কেন্দ্রেই রাজনীতিতে সক্রিয়। লখিমপুরের সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্র এলাকায় বাহুবলী হিসাবেও পরিচিত। তাঁর বিরুদ্ধে খুনের মামলাও ছিল। ফলে তাঁর পুত্রের গ্রেপ্তারির পর এলাকা অশান্ত হয়ে উঠতে পারে বলেও পুলিশের আশঙ্কা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘আপনিই সারা বিশ্বের অনুপ্রেরণা’, ভারতে এসে মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী]

গত রবিবার উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা ছিল অজয় মিশ্র ও উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব মৌর্যর। মন্ত্রীদের আসার পথেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন কৃষকরা। আচমকাই কনভয় থেকে একটি কালো রঙের এসইউভি গাড়ি কৃষকদের ধাক্কা মারে। এর পরই সংঘর্ষ শুরু হয়। ঘটনায় চার কৃষক—সহ মোট ৯ জনের মৃত্যু হয়। আন্দোলনকারী কৃষক ও বিরোধীরা দাবি করেন, যে গাড়িটি কৃষকদের চাপা দিয়েছিল, সেই গাড়িতে ছিলেন আশিস। সোমবারই আশিস-সহ মোট ১৩ জনের নামে খুনের দায়ে এফআইআর দায়ের করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

Advertisement
Next