Advertisement

Oxygen death corona: অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়নি! কেন্দ্রের পক্ষেই মত অধিকাংশ রাজ্যের

10:57 AM Aug 11, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার (Corona) দ্বিতীয় ঢেউয়ে অক্সিজেনের অভাবে কত মৃত্যু হয়েছে? সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে সেই তথ্য দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্র। এবার বিরোধীদের ধাক্কা দিয়ে অধিকাংশ রাজ্যই জানিয়ে দিল, অক্সিজেনের অভাবে সেখানে কোনও কোভিড রোগীর মৃত্যু হয়নি।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: Khudiram Bose-এর প্রয়াণ দিবসে বাংলায় টুইট করে শ্রদ্ধা জানালেন Amit Shah]

বিরোধীদের অভিযোগের পর অক্সিজেনের ঘাটতি সংক্রান্ত বিষয়ে ধোঁয়াশা এড়াতে তৎপর হয় সরকার। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময়ে অক্সিজেনের অভাবে কত জন কোভিড রোগী মারা গিয়েছেন, সেই তথ্য জানতে চেয়ে রাজ্যগুলির মুখ্যসচিবদের চিঠি দেয় কেন্দ্র। মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে এই প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্মসচিব লভ আগরওয়াল বলেন, “অক্সিজেন সংক্রান্ত বিষয়ে মৃত্যু হয়েছে কি না, তা রাজ্যগুলির কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল। এই প্রশ্নটি যখন পার্লামেন্টে তোলা হয় তখন নির্দিষ্টভাবে রাজ্যগুলির কাছে তথ্য চাওয়া হয়। এখনও পর্যন্ত আমরা যা রিপোর্ট পেয়েছি সেখানে একটি রাজ্য মাত্র একজন রোগীর অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে জানিয়েছে। বাকিরা অক্সিজেনের অভাবে রোগী মৃত্যুর কথা বলেনি।” এবার প্রশ্ন উঠছে, গত এপ্রিল মাসে রাজধানী দিল্লি-সহ দেশের বিভিন্ন রাজ্যে অক্সিজেনের অভাবের জন্য যে হাহাকার তৈরি হয়েছিল তা কতটা সত্যি। বহু করোনা রোগীর পরিবার সময়মতো অক্সিজেন না পাওয়ার অভিযোগ জানিয়েছেন, সে সব কীসের জন্য।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সূত্রের খবর, অক্সিজেনর অভাবে মৃত্যু নিয়ে কেন্দ্রের প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে ১৩টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত প্রদেশ। সেগুলি হল–ওড়িশা, অরুণাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, নাগাল্যান্ড, অসম, জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, সিকিম, ত্রিপুরা, ঝাড়খণ্ড, হিমাচল প্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ ও পাঞ্জাব। এরমধ্যে একমাত্র পঞ্জাব জানিয়েছে, সেই রাজ্যে ‘সম্ভবত’ এক জন কোভিড রোগীর অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছিল। তবে কেন্দ্রের প্রশ্নের জবাব দেয়নি পশ্চিমবঙ্গ। উল্লেখ্য, গত এপ্রিলে এক ভয়াবহ দুঃসময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছিল দেশ। করোনার (Coronavirus) দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তেই প্রকট হয়ে ওঠে অক্সিজেন (Oxygen) ও হাসপাতালে বেডের অভাব। তারপরই এই ইস্যুতে কেন্দ্র সরকারকে গজিরে ধরে কংগ্রেস-সহ অন্যান্য বিরোধী দলগুলি। তবে গত জুলাই মাসে কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ (Second Wave) আছড়ে পড়ার পর অক্সিজেনের অভাবে কোনও মৃত্যুর খবর তাদের কাছে নেই। একই সঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে যে দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণের করোনা ভ্যাকসিন রয়েছে।

[আরও পড়ুন: খোয়াই থানায় তৃণমূলের ধরনার জের, Abhishek-সহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে FIR করল ত্রিপুরা পুলিশ]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next