জোম্যাটো ডেলিভারি বয়ের গোপনাঙ্গে কামড় কুকুরের, ভাইরাল রক্তাক্ত ভিডিও

09:06 AM Sep 11, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সম্প্রতি লিফটে কুকুরে হামলার একাধিক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। প্রতিক্ষেত্রে পোষ্যের মালিকের আচরণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এবার মুম্বইয়ে কুকুরের হামলার মুখে পড়লেন এক জোম্যাটো ডেলিভারি বয় (Zomato Delivery Boy)। ওই যুবকের গোপনাঙ্গে কামড় বসায় একটি জার্মান শেপার্ড (German Shepherd)। সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, কুকুরের হামলায় গুরুতর জখম যুবক। রক্তাক্ত ওই যুবককে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। আগের ঘটনাগুলির মতোই কুকুরের মালিককে দুষছে নেটিজেনরা। এমনকী ওই ব্যক্তির শাস্তির দাবি উঠেছে।

Advertisement

ঘটনাটি মুম্বইয়ের পানভেল এলাকার বলে জানা গিয়েছে। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, জোম্যাটো কর্মী যুবক গ্রাহককে খাবার পৌঁছে দিয়ে লিফটে নিচের তলায় নামছেন। লিফটে থেকে বেরোনোর মুখেই এক ব্যক্তির সঙ্গে পোষ্য জার্মান শেপার্ড কুকুরটিকে দেখা যায়। প্রথমবার লিফট থেকে বেরোনোর সময় কুকুর দেখে চমকে যান যুবক। পরে কুকুর এড়িয়ে নিরাপদে বেরোতে গেলেও তা পারেননি। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, আচমকা কুকুরটি ফিরে আসে এবং হামলা করে। জোম্যাটো কর্মীর গোপনাঙ্গে কামড়ে দেয় কুকুরটি।

[আরও পড়ুন: ‘ভারত জোড়ো না ভারত তোড়ো?’ বিতর্কিত ‘দেশদ্রোহী’ যাজকের সঙ্গে রাহুলের সাক্ষাৎ নিয়ে খোঁচা বিজেপির]

ঘটনায় রক্তাক্ত হন যুবক। তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। একদিকে যখন এই ঘটনায় কুকুরের মালিকের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছে জনতা, তখন একটি সূত্রে জানা গিয়েছে, জার্মান শেপার্ডের মালিক আহত যুবকের চিকিৎসার সমস্ত খরচ দিচ্ছেন। যদিও এরপরেও কুকুরের মালিকের প্রতি রাগ কমেনি নেটিজেনদের। অনেকেরই দাবি, মালিকের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নিতে হবে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘রাস্তার কুকুর কামড়ালে, যাঁরা খেতে দেন দায় নিতে হবে তাঁদের’, প্রস্তাব সুপ্রিম কোর্টের]

প্রসঙ্গত, এর আগে লিফটে কুকুরের হামলার দু’টি ভি়ডিও ভাইরাল হয়। দিল্লি (Delhi) ও মুম্বইয়ের মতো মেট্রো শহরে ওই ঘটনাগুলি ঘটে। তার একটিতে এক নাবালককে কুকুর কামড়ায়। লিফটে কুকুর হামলার মুখে পড়া একাধিক ঘটনার প্রশ্ন উঠছে, লিফটের মতো স্বল্প পরিসরের জায়গায় বড় চেহারার পোষা কুকুর নিয়ে ওঠা কতটা যুক্তিযুক্ত। এই বিষয় কোনও নিয়ম বলবৎ করা যায় কিনা তাও ভাবছে বেশকিছু আবাসন কর্তৃপক্ষ।

Advertisement
Next