অন্য রুটে চলত বাস, মালিককে দু’লক্ষ টাকা জরিমানা কলকাতা হাই কোর্টের

02:03 PM Sep 10, 2022 |
Advertisement

রাহুল রায়: নির্দিষ্ট রুটে বাস চালানো নিয়ে আদালতের নির্দেশ না মামলায় এবার হাই কোর্টের (Calcutta High Court) তোপের মুখে পড়তে হল বাস মালিককে। মামলায় অভিযুক্ত বাস মালিককে কাঠগড়ায় তুলে দু’লক্ষ টাকা জরিমানা করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

Advertisement

আদালতের নির্দেশ, পাঁচদিনের মধ্যে হাই কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে ওই বাস মালিককে দু’লক্ষ টাকা জরিমানা জমা দিতে হবে। পাশাপাশি, এই দু’টি বাসকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার এবং বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আদালতের নির্দেশ স্মরণ করিয়ে বিচারপতির হুঁশিয়ারি, এই নির্দেশ কার্যকর না করা হলে ২৩ সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানিতে শিবনাথ বন্দোপাধ্যায় নামে ওই মালিককে জেলে পাঠাবে আদালত।

[আরও পড়ুন: গার্ডেনরিচে ব্যবসায়ীর ফ্ল্যাটে টাকার পাহাড়, খাটের তলা থেকে উদ্ধার বান্ডিল বান্ডিল নোট]

দিনের পর দিন দূরপাল্লার বাস ধর্মতলায় দাঁড় করিয়ে রাস্তা আটকানো, ব্যবসা বানচালের অভিযোগে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল কলকাতা থেকে পুরুলিয়া বাস রুটের এক বাস মালিক। মামলাকারীর আইনজীবী দুর্গাপ্রসাদ দত্ত জানান, মহিলা বাস মালিক আলপনা হালদার বিশেষভাবে সক্ষম। তাঁর দু’টি অত্যাধুনিক বাস রয়েছে, যেটি পুরুলিয়া ঝালদা থেকে রওনা দেয় কলকাতায়। ধর্মতলা পর্যন্ত দু’টি বাসি রাত্রিকালীন পরিষেবা দেয়। সাধন বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁরও দু’টি বাস রয়েছে। সেই বাসের রুট হল পুরুলিয়া ঝালদা থেকে করুণাময়ী পর্যন্ত। কিন্তু সাধন বন্দ্যোপাধ্যায়ের দু’টি বাস পুরুলিয়া থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত স্টপেজ দিয়ে তারপরে সেটি করুণাময়ীতে পৌঁছে যায়। যে কারণে কল্পনাদেবীর ব্যবসায়ী এবং আর্থিক ক্ষতি হচ্ছিল বলে অভিযোগ।

Advertising
Advertising

এ বিষয়ে সাধনবাবুর বিরুদ্ধে পরিবহণ দপ্তরে একাধিকবার অভিযোগ জানিয়েছিলেন কল্পনাদেবী, পরিবহণ দপ্তর ২০১৫ সালে এক বছরের জন্য সাধনবাবুর দু’টি বাসের পারমিট বাতিল করে দেয়। এবং আর্থিক জরিমানা করা হয়েছিল। এর পরেও থেমে যাননি সাধনবাবু। ফের পুরুলিয়া ঝালদা থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত রাত্রি পরিষেবা বাস চালান। অগত্যা কল্পনা দেবী কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন।

[আরও পড়ুন: নভেম্বরের মধ্যেই ৫০ হাজার স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড, টার্গেট বেঁধে দিল নবান্ন]

Advertisement
Next