Advertisement

Kolkata Civic Polls: তৃণমূলের প্রার্থী নিয়ে বিভ্রান্তি, টিকিট পেয়েও পাচ্ছেন না সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বোন!

09:41 PM Nov 28, 2021 |

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: কলকাতা পুরভোটের (Kolkata Civic Polls 2021) প্রার্থীতালিকায় একাধিক চমক দিয়েছে তৃণমূল। বাদ পড়েছে একাধিক পুরনো মুখ। ঠিক তেমনই জায়গা করে নিয়েছেন নতুন অনেকেই। তাঁদের মধ্যেই ছিলেন প্রয়াত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায়। ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পর প্রচারেও ঝাঁপিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আদৌ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ তিনি পাবেন কি না, তা এখন প্রশ্ন চিহ্নের মুখে। 

Advertisement

১৯ ডিসেম্বর কলকাতার পুরভোট। আগামিকাল অর্থাৎ সোমবার থেকে শুরু মনোনয়ন। রবিবার প্রার্থীদের প্রতীক দেওয়ার কথা ছিল তৃণমূলের। সম্ভবত এদিন গভীর রাত অথবা সোমবার সকালের মধ্যেই প্রতীক পেয়ে যাবেন সকলেই। কিন্ত ঘটনাচক্রে এই মুহূর্তে প্রতীক পাচ্ছেন না সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায়। যা স্বাভাবিকভাবেই উসকে দিয়েছে প্রার্থী বদলের জল্পনা। তবে কি তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে সরিয়ে বিদায়ী কাউন্সিলর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়কেই টিকিট দেবে ঘাসফুল শিবির? প্রশ্ন সকলের মনে।

[আরও পড়ুন: Kolkata Civic Polls 2021: ‘লোকে তো বলে আমিও বিজেপি ছাড়ছি’, কেন এমন বললেন দিলীপ ঘোষ?]

কিন্তু কেন প্রতীক দেওয়া হচ্ছে না তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে? এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সুব্রতবাবুর বোন জানান, রাসবিহারীর বিধায়ক দেবাশিস কুমারের অফিস থেকে ফোন করা হয়েছিল তাঁকে। জানানো হয়, ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী নিয়ে কিছু সমস্যা হয়েছে। সেই কারণে পরে তাঁকে প্রতীক দেওয়া হবে। এই ঘটনায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ তনিমাদেবী। তিনি বলেন, “শুনছি সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়কেই টিকিট দেওয়া হতে পারে। কিন্তু আমি তো প্রচার শুরু করে দিয়েছিলাম। যদি পালটানোরই ছিল, তাহলে আমাকে প্রার্থী করার কোনও প্রয়োজন ছিল না।”  এবিষয়ে এখনও দলের তরফে কিছু জানানো হয়নি তনিমাদেবীকে। এ বিষয়ে একাধিকবার সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। তবে সত্যিই কি তনিমাদেবীকে সরিয়ে দেওয়া হবে? ফের ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের টিকিট পাবেন সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়ই? উত্তরের অপেক্ষায় রাজনৈতিক মহল।

[আরও পড়ুন: Kolkata Civic Polls: ‘আমি তো তৃণমূলেই আছি’, কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুরবদল বিদায়ী কাউন্সিলরের]

Advertisement
Next