TET দুর্নীতি মামলা: তদন্ত করবে সিবিআই-ই, রাজ্যের আবেদন খারিজ করে রায় হাই কোর্টের

03:34 PM Sep 02, 2022 |
Advertisement

রাহুল রায়: TET বা প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ (Primary TET Scam) দুর্নীতি মামলার তদন্ত করবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই-ই। আজ এমনই রায় দিল কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta HC)। খারিজ হয়ে গেল রাজ্যের আবেদন। এদিন বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের ডিভিশন বেঞ্চ TET মামলার তদন্তে সিবিআইয়ের উপরই ভরসা রাখল। এর আগে ২০১৪ সালের টেট নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সিবিআই (CBI)তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকার, প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ, তৎকালীন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য এবং চাকরি বাতিল হওয়া ব্যক্তিরা। এই তদন্ত কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে হোক, তা চায়নি পর্ষদ। তাঁর সেই মামলার শুনানি শেষ হয়েছিল আগেই। স্থগিত ছিল রায়দান। শুক্রবার সকালে উচ্চ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ ৮৫ পাতার নির্দেশনামা দিয়ে বহাল রাখল সিঙ্গল বেঞ্চের রায়কেই। অর্থাৎ TET দুর্নীতি মামলার তদন্ত করবে সিবিআই-ই। পাশাপাশি এদিন পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যর অপসারণের সিদ্ধান্তও বহাল রাখা হল।

Advertisement

রায় ঘোষণার পর সিবিআইয়ের তরফে আইনজীবী ফিরদৌস শামিম জানিয়েছেন, এই মামলায় ডিভিশন বেঞ্চ কোনও হস্তক্ষেপ করেনি। যেভাবে আদালতের নজরদারিতে তদন্ত চলছিল, তেমনই চলবে এবং উচ্চ আদালতে নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর রিপোর্ট দিয়ে তদন্তের অগ্রগতি জানাতে হবে। ২৬৯ জনের চাকরি বাতিলই থাকবে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ২৬৯ জনকে পুনর্বহাল নয়। এককথায় বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রতিটি নির্দেশই বহাল রেখেছে বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি লপিতা বন্দোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। 

[আরও পডুন: সাড়ে তিন বছর ধরে দুই কিশোরীকে ধর্ষণ, অবশেষে গ্রেপ্তার অভিযুক্ত লিঙ্গায়েত ধর্মগুরু]

একনজরে দেখে নেওয়া যাক আজকের রায়দানে ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ – 

Advertising
Advertising

  • সিবিআই এর রিপোর্ট থেকেও স্পষ্ট যে অনেকেই টেট ফেল করেও চাকরি পেয়েছেন
  • সিঙ্গল বেঞ্চের প্রশ্নের উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়েছে প্রাথমিক পর্ষদ
  • কেন ২৬৯ জনকে বাড়তি ১ নম্বর দেওয়া হয়েছিল তা আজ পর্যন্ত স্পষ্ট নয়
  • OMR শিট-সহ সিঙ্গল বেঞ্চের সামনে একাধিক নথি পেশ করেনি পর্ষদ 
  • বারবার নথি চেয়ে কোন ভুল করেনি সিঙ্গেল বেঞ্চ

৮৫ পাতার রায়ে ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে – 

  • পর্ষদের নথি ফরেনসিক পরীক্ষার নির্দেশ বহাল
  • সিঙ্গল বেঞ্চই মামলা পর্যবেক্ষণ করবেন
  • আদালতের নজরদারিতে চলবে তদন্ত
  • নির্দিষ্ট সময় পরপর রিপোর্ট চাইতে পারবে সিঙ্গল বেঞ্চ
  • ২৬৯ বরখাস্ত প্রার্থী দ্রুত শুনানির আর্জি জানাতে পারবেন না

[আরও পডুন: মুক্তিযুদ্ধে জেলে মোদি! কোনও তথ্যই নেই, জানাল খোদ প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর]

Advertisement
Next