Advertisement

Mamata Banerjee: ‘গোটা দেশের অনুপ্রেরণা কলকাতাই, নীল-সাদা হচ্ছে দিল্লি, মুম্বইও’, পুরভোটের প্রচারে বললেন মমতা

06:43 PM Dec 16, 2021 |

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: মাঝে আর স্রেফ ২ দিন। তারপরই কলকাতা পুরসভার ভোট (Kolkata Municipal Election)। তার আগে শেষমুহূর্তের প্রচার তুঙ্গে শাসকদলের। বৃহস্পতিবার একদিনে তিনটি জনসভায় শামিল তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বাঘাযতীনের যুব সংঘের মাঠে যাদবপুর ও টালিগঞ্জের ১৯ টি ওয়ার্ডের প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচার শুরু করেন তিনি। এখানে কলকাতার উন্নয়নের কথা বলতে গিয়ে নীল-সাদা রং প্রসঙ্গ টানলেন মমতা। তাঁর বক্তব্য, ”সৌন্দর্যায়নের স্বার্থে কলকাতায় নীল-সাদা রং করিয়েছিলাম। তখন অনেকে ব্যঙ্গ করেছিল। আর আজ, কলকাতা থেকে অনুপ্রেরণা পেয়ে দিল্লি, মুম্বই শহরেও নীল-সাদা রং করা হচ্ছে। গোটা দেশের অনুপ্রেরণা কলকাতা, বাংলা।” আগামী ২ বছরে কলকাতার উন্নয়নের আরও একগুচ্ছ ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

দশ বছর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার রাজ্যের ক্ষমতায় আসার পর সৌন্দর্যায়নে জোর দেওয়া হয়েছে। বিশেষ বিশেষ বিল্ডিংগুলিকে প্রিয় রং নীল-সাদা রং করা হয়েছে। এ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে মমতার মন্তব্য, ”সেসময় ‘আর্জেন্টিনা’ বলে কটাক্ষ করা হয়েছিল। কিন্তু সেই নীল-সাদা রঙই এখন পছন্দ করছেন দিল্লি, মুম্বইয়ের মানুষজন। আমি নীল-সাদা কেন করলাম? ওটা আমার পার্টির কালার না। ওটা আকাশের রং। আকাশের কোনও সীমা নেই, তাই এই দুই শহরও নীল-সাদা রঙের দিকে ঝুঁকছে।” তাঁর আরও বক্তব্য, ”রবীন্দ্রসংগীত বাজালাম প্রথম ট্রাফিক সিগন্যালে। সকলে বলল, এ আবার কী? বললাম কেন? বাংলার সংস্কৃতি এটাই। মানুষ শুনবে, শিখবে।”

[আরও পড়ুন: পুরভোটের আগে শহরে একাধিক অপরাধমূলক কাজের হদিশ, মানবপাচার চক্রে গ্রেপ্তার আরও ৩]

শহরে পুর পরিষেবার উন্নয়নে বাড়ি বাড়়ি জল সরবরাহ এবং মেট্রোরেল যোগাযোগ ব্যবস্থা নিয়ে প্রতিশ্রুতি দেন মমতা। আগামী ২ বছরের মধ্যে ঘরে ঘরে জল পৌঁছে যাবে, এই ঘোষণা করে তাঁর বক্তব্য, ”কেন্দ্র জলকর বসানোর জন্য় চাপ দিয়েছিল। কিন্তু আমি বলেছি, জলকর বসানো যাবে না। তাই আমি জলকর মকুবও করে দিয়েছি।” আগামী ২ বছরের মধ্যে গোটা কলকাতা শহরে মেট্রোপথে সংযুক্ত হয়ে যাবে। এমনই জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: দুর্গাপুজো ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পাওয়ায় খুশি কলকাতার পুজো উদ্যোক্তারা, চলছে সেলিব্রেশনের প্রস্তুতি]

দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে তিনি আরও বলেন,  ”কাজ করে যাওয়াটাই কাজ। আমি মানুষের কাজ করব, মানুষের বিপদে গিয়ে দাঁড়াব। জল জমলে কী করে সরাতে হয়, দেখব। বিক্রমপুর ঝিল অনেকে বুজিয়ে দিতে চায়। মাল্টিস্টোরি করতে চায়। এটা আছে বলেই বৃষ্টির জলটা গিয়ে পড়ে ঝিলে।” পাশাপাশি আদি গঙ্গা ড্রেজিং এবং শুকিয়ে যাওয়া টালি নালার সংস্কারেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

Advertisement
Next