Advertisement

রাম-বাম ঘোঁট প্রকাশ্যে! বুদ্ধদেবের পদ্মপ্রাপ্তি প্রসঙ্গে দলীয় মুখপত্রে খোঁচা তৃণমূলের

03:39 PM Jan 26, 2022 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের দেওয়া ‘পদ্মভূষণ’ সম্মান প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য (Buddhadeb Bhattacharya)। কিন্তু তাতে বিতর্ক কমছে কই। রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস বুদ্ধবাবুর এই পদ্ম সম্মান প্রাপ্তি নিয়ে রীতিমতো আক্রমণাত্মক। দলীয় মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’য় তৃণমূল (TMC) দাবি করেছে, এতদিন ধরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা তৃণমূল কংগ্রেস যে রাম-বাম ঘোঁটের কথা বলে আসছে বুদ্ধদেবের পদ্ম সম্মান প্রাপ্তিতে সেটাই প্রতিষ্ঠিত হল।

Advertisement

‘জাগো বাংলা’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “মুখ্যমন্ত্রী বা সংস্কৃতিমন্ত্রী থাকাকালীন বিজেপির তৎকালীন হেভিওয়েট লালকৃষ্ণ আডবানীর সঙ্গে মধুর ছিল বুদ্ধদেবের। দিল্লি গিয়ে তিনি আডবানীর কাছে একের পর এক দাবি আদায় করে এনেছেন। আডবানীও প্রকাশ্যে বুদ্ধদেবের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের কথা স্বীকার করেছেন।” বুদ্ধ-আডবানীর সুসম্পর্ক এবং বুদ্ধদেবের পদ্মপ্রাপ্তি, এই দুই ঘটনার নেপথ্যে ‘একে একে দুই’ সমীকরণ দেখছে রাজ্যের শাসকদল। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় যে বারবার অসুস্থ বুদ্ধবাবুকে দেখতে যান, তার নেপথ্যেও এই বিজেপি-সিপিএম (CPIM) সখ্যই দেখছে তৃণমূল।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: Republic Day 2022: মাথায় উত্তরাখণ্ডের টুপি, মণিপুরি চাদর গায়ে এক দেশের বার্তা প্রধানমন্ত্রীর]

‘জাগো বাংলা’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,”শেষ ১০ বছরে সিপিএমের ভোট বিজেপিতে (BJP) গিয়ে জড়ো হয়েছে। বুদ্ধবাবুকে সম্মান দিয়ে বিজেপি আসলে সিপিএম ভোটারদের ভোট অফ থাঙ্কস জানাল।” তৃণমূলের সাফ কথা,”সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলনে বুদ্ধবাবুর হাত রক্তাক্ত হয়েছিল। সেই মুখ্যমন্ত্রীকে পদ্মভূষণ দেওয়া মানে জমি আন্দোলনে সরকারি নিষ্পেষণকে স্বীকৃতি দেওয়া।” তৃণমূল কংগ্রেস বলছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) অনেক আগেই রাম-বাম ঘোঁটের কথা বলেছিলেন। সেটায় সিলমোহর দিল কেন্দ্র সরকার।

[আরও পড়ুন: ৭৩তম সাধারণতন্ত্র দিবসে কলকাতার রাজপথে ‘নেতাজি’, কুচকাওয়াজে উপস্থিত মমতা-ধনকড়]

শুধু বুদ্ধবাবু নয়, আর দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর পদ্মপ্রাপ্তি নিয়েও সরব হয়েছে তৃণমূল। তাঁরা হলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং এবং জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গুলাম নবি আজাদ (Ghulam Nabi Azad)। তৃণমূল বলছে, বাবরি মসজিদ ধ্বংসে প্রত্যক্ষ মদত দেওয়ার কৃতজ্ঞতা স্বরূপ কল্যাণ সিংকে (Kalyan Singh) মরণোত্তর সম্মান দিল কেন্দ্র। আর গুলাম নবি আজাদ পেলেন বিজেপি ঘনিষ্ঠতার পুরস্কার। যে তিনজন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবার পদ্মসম্মান পেলেন তাঁদের একজন কংগ্রেসে, একজন সিপিএমের এবং একজন কংগ্রেসের। যা আশ্চর্য সমাপতন বলে মনে করছে ঘাসফুল শিবির।

Advertisement
Next