SA v IND 1st ODI: শচীনকে টপকে রেকর্ড কোহলির, শার্দূলের মরিয়া লড়াই সত্ত্বেও হার ভারতের

10:22 PM Jan 19, 2022 |
Advertisement

দক্ষিণ আফ্রিকা: ২৯৬/৪ (বাভুমা-১১০ ডুসেন-১২৯*, বুমরাহ-৪৮/২)
ভারত: ২৬৫/৮ (ধাওয়ান-৭৯, কোহলি-৫১, শার্দূল-৫০*)
৩১ রানে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা

Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৬ সালের ২৯ অক্টোবরের পর আজ প্রথমবার অধিনায়কের টুপি খুলে রেখে ব্যাটার হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন বিরাট কোহলি। আর সেই সফরের শুরুতেই এল হাফ সেঞ্চুরি। শুধু তাই নয়, রেকর্ডের নিরিখে পিছনে ফেলে দিলেন শচীন তেণ্ডুলকরকেও। কোহলির ব্যক্তিগত ইনিংসটা হয়তো আরও স্মরণীয় হয়ে থাকত যদি পার্লে ওয়ানডে সিরিজের শুরুটা হত দলের জয় দিয়ে। কিন্তু প্রোটিয়া ব্যাটার ও বোলারদের দাপটে ছিন্নভিন্ন হয়ে গেল কেএল রাহুলের সংসার।কাজে দিল না টিম ইন্ডিয়ায় (Team India) কামব্যাক করা শিখর ধাওয়ান ও শার্দূলের মরিয়া লড়াই। ৩১ রানে হেরে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ পিছিয়ে গেল ভারত।

এদিন ওয়ানডে-তে ৬৩ তম অর্ধশতরানটি করে ফেললেন কোহলি (Virat Kohli)। তবে ৫০ পেরনোর আগেই গড়ে ফেলেন নয়া রেকর্ড। ভারতীয় ব্যাটার হিসেবে বিদেশের মাটিতে একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে গেলেন কোহলি। দেশের বাইরে ১০৮টি ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ৫০৭০*। এই তালিকাতেই ১৪৭ ম্যাচে ৫০৬৫ রান নিয়ে শীর্ষে ছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার। নেতৃত্বের দায়িত্ব ঝেড়ে ফেলে পার্লে শচীনকে টপকে গেলেন কোহলি। কিন্তু ম্যাচের ফল আশানুরূপ হল না। টস জেতা ইস্তক দাপট দেখিয়ে গেল হোম ফেভারিটরা।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: মহেশের জোড়া গোলে শাপমুক্তি, কোচ মারিওর হাত ধরে মরশুমের প্রথম জয় পেল এসসি ইস্টবেঙ্গল]

টেস্ট সিরিজ জয়ের আনন্দে যেন আত্মবিশ্বাসে টগবগ করে ফুটছে দক্ষিণ আফ্রিকা। টেস্ট ক্যাপ্টেন এলগারের মতোই ওয়ানডে অধিনায়ক বাভুমাও দুর্দান্ত ইনিংস খেললেন। একেই বলে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া। ১১০ রান করেন তিনি। তাঁর পর আবার অপরাজিত ১২৯ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলে দলকে প্রায় তিনশোর কাছাকাছি পৌঁছে দেন ডুসেন। প্রোটিয়া বোলিং ঝড়ে যে লক্ষ্যে পৌঁছতে ব্যর্থ হল ভারত।

শুরুতেই অধিনায়ক রাহুলকে (১২) ফিরিয়ে ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারে ধাক্কা দেন মার্করাম। তবে এরপরই জুটি বেঁধে দুরন্ত ছন্দে এগিয়ে যান ধাওয়ান (Shikhar Dhawan) ও কোহলি। দীর্ঘদিন পর প্রত্যাবর্তন করেই চেনা ফর্মে ধরা দেন গব্বর। ৮৪ বলে ৭৯ রান করে আউট হন। ধাওয়ান-কোহলি ফিরতেই এনগিডি, শামসিদের দৌরাত্ম্যে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে দলের মিডল অর্ডার। শার্দূল ঠাকুর শেষে দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন ঠিকই, কিন্তু ততক্ষণে ম্যাচ হাত থেকে বেরিয়েই গিয়েছে। রোহিতের অনুপস্থিতিতে রাহুলের (KL Rahul) নেতৃত্বে এই সিরিজে ভারত কী করে, সেটাই এখন দেখার।

[আরও পড়ুন: আইসিসি বর্ষসেরা টি-২০ দলের নেতৃত্বে বাবর আজম, জায়গা পেলেন না কোনও ভারতীয় ক্রিকেটার]

Advertisement
Next