Advertisement

নেইমার নির্ভরতা নয়, টিম ব্রাজিলের বাজিমাতেই পাকা নক-আউটের টিকিট

12:36 PM Jun 28, 2018 |
Advertisement
Advertisement

সার্বিয়া: ০
ব্রাজিল: ২ (পাওলিনহো, সিলভা)

Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অশ্বমেধের ঘোড়া ছুটছে সেই যোগ্যতা অর্জন পর্ব থেকে। লক্ষ্য, ষষ্ঠ বিশ্বকাপ ঘরে তোলা। তাই এ ঘোড়া যে সহজে থামবে না, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বুধ-সন্ধ্যেতেই যখন ইন্দ্রপতন ঘটেছে, এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে বড় অঘটন ঘটিয়ে যখন বিদায় নিয়েছে জার্মানি, তখন আপন মেজাজে দাপট দেখালেন নেইমার-কুটিনহোরা। আর হাসতে হাসতে পৌঁছে গেলেন বিশ্বকাপের পরের পর্বে। নীল হলুদ জার্সি গায়ে এ দলের হয়ে কোনও ঈশ্বর খেলতে নামেন না। মাঠে কতৃত্ব দেখান না কোনও ‘বস’। তাই এ দল বোঝে দলগতভাবে পরিশ্রম করে সাফল্য অর্জনের মূল্য। বিপক্ষের শেষ নির্যাসটুকু নিংড়ে নিয়ে ব্রাজিলীয় ফুটবলের ঐতিহ্যকে অক্ষুণ্ণ রাখা। রক্ত-মাংসের দলটির সম্বল শুধু নামটুকুই। ‘ব্রাজিল’।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[জার্মানদের ব্যর্থতায় বিশ্রী হেরেও নক-আউটে মেক্সিকো, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন সুইডেন]

ব্রাজিল বিশ্বকাপে সেলেকাওদের আর এই দলের মধ্যে সবচেয়ে বড় পার্থক্য, স্কোলারি বাহিনী ছিল নেইমার নির্ভর। তাঁর অনুপস্থিতিতে দলের আত্মবিশ্বাস তলানিতে গিয়ে ঠেকত। কিন্তু তিতে জমানায় সেসব উধাও। এ দলে সবাই রাজা। নেতৃত্বের ক্ষেত্রে কোচের রোটেশন পদ্ধতিতে যে প্রত্যেককে আত্মনির্ভর করে তুলছে, তা বেশ স্পষ্ট। গোলদাতাদের তালিকাই সে ছবি তুলে ধরছে বারবার। গত ম্যাচের মতো এদিনও দলগত প্রয়াসেই এল কাঙ্খিত জয়। এ দলে সেই ২০০২ বিশ্বকাপের ঝলক। যেখানে ম্যাচে আধিপত্য থাকত কেবল সেলেকাওদেরই। এদিন সেই যোগা বনিতোর ঔজ্জ্বল্যেই পরিপূর্ণ হল রাশিয়ার মহারণ।

এদিন চোটের জন্য খেলার ১০ মিনিটের মধ্যেই দুর্দান্ত ফর্মে থাকা মার্সেলোর মাঠ ছাড়াটা খানিকটা বেগ দিয়েছিল ব্রাজিলকে। কিন্তু আক্রমণের ঝাঁজ কমেনি। প্রথমার্ধে খানিকটা কোস্টা রিকা ম্যাচের রি-প্লেই চোখে পড়ল। বিপক্ষের ডেরায় লাগাতার হানা। ড্র হলেই নক-আউট নিশ্চিত জেনেও জয়ের জন্যই মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন নেইমাররা। লাগামহীন ঘোড়ার দৌড় তখন চেটেপুটে উপভোগ করছেন ফুটবলপ্রেমীরা। লং রানে বল হালকা লবে গোল করে প্রথমার্ধেই দলকে এগিয়ে দিলেন পাওলিনহো। আর কর্নারকে কাজে লাগিয়ে হেডারে গোল করে জয় পক্ত করলেন থিয়াগো সিলভা। তবে ফিলিপ লুইস কিংবা নেইমার সহজ সুযোগ হাতছাড়া না করলে আরও ব্যবধানে জিততেই পারতেন তিতের ছেলেরা। কিন্তু নেইমারের ভাগ্যে এদিন সত্যিই গোল লেখা ছিল না।  তবে দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন সার্বিয়ান স্ট্রাইকার।

[আর্জেন্টিনা ম্যাচের সময় মদ্যপ ছিলেন, স্বীকার করলেন সুস্থ মারাদোনা]

দুটি জয় ও একটি ড্র করে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ ই-র শীর্ষে থেকেই নক-আউটে গেল ব্রাজিল। অর্থাত শেষ ষোলোয় তাদের জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে মেক্সিকো। এদিকে সুইস গোলকিপারের চরম ভুলে কোস্টা রিকার কাছে ২-২ গোলে আটকে গেল দল। পাঁচ পয়েন্টে দ্বিতীয় স্থানে রইল সুইজারল্যান্ড। প্রি-কোয়ার্টারে যাদের প্রতিপক্ষ সুইডেন। আর এবারের মতো বিশ্বকাপকে বিদায় সার্বিয়া ও কোস্টা রিকা।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next