কমনওয়েলথ গেমস শেষে নিখোঁজ পাকিস্তানের দুই বক্সার, তদন্তে পাক বক্সিং ফেডারেশন

11:51 AM Aug 11, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার শেষ হয়েছে কমনওয়েলথ গেমস (Commonwealth Games)। ইতিমধ্যে বার্মিংহাম (Birmingham) থেকে ঘরে ফিরেছেন এবারের গেমসে অংশ নেওয়া পাকিস্তান (Pakistan) দলের সব সদস্য। কিন্তু খোঁজ মিলছে না দুই বক্সারের (Boxer)। বুধবার একথা জানিয়েছে পাকিস্তানের জাতীয় বক্সিং সংস্থা।

Advertisement

পাকিস্তানের জাতীয় বক্সিং সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখোঁজ দুই বক্সারের নাম সুলেমান বালোচ (Suleman Baloch) এবং নাজিরউল্লাহ (Nazeerullah)। সোমবার থেকেই খোঁজ মিলছে না দুই পাক বক্সারের। জানা গিয়েছে, পাকিস্তান দল ইসলামাবাদের (Islamabad) উদ্দেশে রওনা দেওয়ার দু’ঘণ্টা আগে নিখোঁজ হন সুলেমান ও নাজিরউল্লাহ।

[আরও পড়ুন: কোভিডের বিরুদ্ধে ‘বিরাট জয়’ ঘোষণা কিমের, বাস্তবে পরিস্থিতি শোচনীয়, বলছেন বিশেষজ্ঞরা]

পাকিস্তান বক্সিং সংস্থার সচিব নাসির টাং-এর (Nasir Tang) বক্তব্য, দুই বক্সারের পাসপোর্ট এবং যাবতীয় নথি রয়েছে ফেডারেশনের যে কর্তারা বার্মিংহাম গিয়েছিলেন তাঁদের কাছে। এর ফলে ভিন দেশে বিপদে পড়তে পারেন পাক বক্সাররা। যে কারণে দলের তরফে ইংল্যান্ডে (England) পাকিস্তানের দূতাবাসকে জানানো হয়েছে বিষয়টি। এছাড়াও ইংল্যান্ড পুলিশকেও দুই বক্সারের নিখোঁজ হওয়ার কথা জানানো হয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তান অলিম্পিক সংস্থা চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

Advertising
Advertising

এবার কমনওয়েলথ গেমসে দু’টি সোনা-সহ মোট আটটি পদক পেয়েছে পাকিস্তান। যদিও বক্সিং থেকে কোনও পদক আসেনি। দু’টি সোনা এসেছে ভারোত্তোলন এবং জ্যাভলিন থেকে। উল্লেখ্য, কমনওয়েলথ গেমসের (Commonwealth Games) মাঝপথে নিখোঁজ হন শ্রীলঙ্কার অন্তত দশজন অ্যাথলিট। নিখোঁজদের মধ্যে ছিলেন জুডোকা চামিলা দিলানি, তাঁর ম্যানেজার আসিলা ডি’ সিলভা, কুস্তিগির সানিথ চতুরঙ্গা প্রমুখ।এরপর পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন শ্রীলঙ্কার আধিকারিকরা। শ্রীলঙ্কা আধিকারিকরা জানান, ওই অ্যাথেলিটরা আর দেশে ফিরতে চান না। ইংল্যান্ডে থেকে গিয়ে নিজেদের জীবন অন্যভাবে কাটাতে চান।

[আরও পড়ুন: ইউক্রেনের পরমাণু কেন্দ্রে রকেট হামলা রাশিয়ার, মৃত কমপক্ষে ১৩]

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শ্রীলঙ্কার এক আধিকারিক জানিয়েছিলেন, আমার মনে হয় ওরা ইংল্যান্ড থেকে যেতে চাইছে। এখানে কোনওরকমে কাজ পেয়ে যাবে বলেই হয়তো পালিয়ে গিয়েছে। খেলোয়াড়দের নিখোঁজ হওয়ার কথা প্রকাশ্যে আসার পরেই শ্রীলঙ্কার মোট ১৬০ সদস্যের পাসপোর্ট জমা করে নেওয়া হয়েছে, যাতে কমনওয়েলথ গেমস শেষে সকলে শ্রীলঙ্কায় ফেরত যায়।

Advertisement
Next