তাইওয়ানের জলসীমা পেরল চিনা যুদ্ধবিমান, স্বশাসিত দ্বীপে ফের সফর মার্কিন প্রতিনিধির

07:45 PM Aug 21, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রবিবার সকাল থেকেই তাইওয়ানের (Taiwan) আকাশসীমা ঘেঁষে মহড়া চালাচ্ছিল চিনা যুদ্ধবিমান। বিকেল হতেই তাইওয়ানের মিডিয়ান লাইন পার করে ঢুকে পড়ল পাঁচটি যুদ্ধবিমান। তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এহেন উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যেই ফের রবিবার তাইওয়ান সফরে গিয়েছেন মার্কিন প্রতিনিধি (US Delegation)। সোমবারই তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে মার্কিন ইন্ডিয়ানা প্রদেশের গভর্নর এরিক হলকোম্বের বৈঠক হবে। সেখান থেকে দক্ষিণ কোরিয়াতেও যাবেন এরিক।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

সফরের আগে টুইট করে এরিক জানিয়েছিলেন, “চলতি সপ্তাহে আমি নতুন সম্পর্ক গড়ার কাজ করব। সেই সঙ্গে পুরোন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কগুলিও আবার নতুন করে গড়ে তুলব। তাইওয়ান এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করা হবে।” অন্যদিকে রবিবার সকাল থেকেই ১২টি চিনা (China) যুদ্ধবিমান এবং ছ’টি যুদ্ধজাহাজ তাইওয়ানের সীমানায় ঘোরাফেরা করছিল। বিকেল হতেই স্বশাসিত দ্বীপটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, পাঁচটি যুদ্ধবিমান মিডিয়ান লাইন (Taiwan Median Line) পার করে তাইওয়ানের ভূখণ্ডে ঢুকেছে।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: ‘স্বাধীনতা দিবসেই হামলা চালাবে রাশিয়া’, দেশবাসীকে সতর্কবার্তা ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের]

প্রসঙ্গত, মার্কিন স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সফর শেষ হওয়ার পর থেকেই তাইওয়ানকে ঘিরে লাগাতার সামরিক মহড়া চালাচ্ছে চিন। বারবার আন্তর্জাতিক মহলে নিন্দার মুখে পড়লেও পিছু হটেনি লালফৌজ, বরং আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়েছে তারা। চিনের চোখরাঙানিকে উপেক্ষা করার বার্তা দিয়ে গত রবিবারেও পাঁচ সদস্যের মার্কিন প্রতিনিধি দল তাইওয়ান সফরে গিয়েছিল। চিনের তরফে বলা হয়েছিল, মার্কিন সফরের ফলে আরও স্পষ্ট হয়ে গেল যে, চিনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চাইছে আমেরিকা।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

জানা গিয়েছে, পেলোসির সফর বাতিল করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অনুরোধ করেছিলেন চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। কিন্তু সেই আবেদনে কর্ণপাত না করেই পঁচিশ বছরে প্রথম মার্কিন স্পিকার হিসাবে তাইওয়ানে পা রেখেছিলেন পেলোসি। এই সফরের প্রতিবাদ হিসাবেই তাইওয়ানের বিরুদ্ধে বারবার শক্তি প্রদর্শন করছে চিন। লালফৌজকে যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছেন জিনপিং। সমর সূত্রের নিয়ম মেনেই তাইওয়ানের সামরিক ঘাঁটি ও সরঞ্জাম চিনের নিশানায় রয়েছে। দেশটির উপর চাপ তৈরি করতে ও হামলার পরিকল্পনা খতিয়ে দেখতেই এহেন অনুপ্রবেশ করছে চিনা যুদ্ধবিমানগুলি।

[আরও পড়ুন: তালিবানের হাতে আটক মার্কিন পরিচালক, চোখ বেঁধে নিয়ে যাওয়া হল গোপন স্থানে]

Advertisement
Next