Advertisement

পঞ্চম দফার ভোট শান্তিপূর্ণ, মত নির্বাচন কমিশনের

08:14 AM Apr 18, 2021 |
Advertisement
Advertisement

বঙ্গে পঞ্চম দফার ভোট মিটল শান্তিপূর্ণভাবে। উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের মোট ৬ জেলার ৪৫ টি কেন্দ্রে হল ভোটগ্রহণ পর্ব। জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কালিম্পং, উত্তর ২৪ পরগনা, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমানের বেশ কয়েকজন হেভিওয়েটের ভাগ্য পরীক্ষা হল। নিরাপত্তায় মোতায়েন ছিল মোট ৮৫৩কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। 

Advertisement

সন্ধে ৭.৩৪: পঞ্চম দফার ভোট শান্তিপূর্ণ, জানিয়ে দিল কমিশন। 

সন্ধে ৬.২৮: অসুস্থ কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা রয়েছে তাঁর। সন্ধেয় হঠাৎই তাঁর শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হয়। দলীয় কার্যালয়েই তাঁকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। 

সন্ধে ৬.২৩: বর্ধমান দক্ষিণের আলমগঞ্জ এলাকায় তৃণমূল-বিজেপি গোলমাল বাঁধে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। সেই সময় পালানোর চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। একজন আগ্নেয়াস্ত্র ফেলে পালাতে গেলে তাকে ধরে ফেলে পুলিশ। উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্রটি। ঘটনায় আরও দুইজনকে পুলিশ ধরেছে বলে খবর। জানা গিয়েছে, সেখানকার ২১৬ নম্বর বুথের অদূরে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য। তবে ওই ব্যক্তির রাজনৈতিক পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

সন্ধে ৬.২২: পৌনে ছ’টা পর্যন্ত বাংলায় ভোট পড়ল ৭৮.৩৬ শতাংশ।

বিকেল ৫.৪৯: বিকেল পাঁচটা অবধি নদিয়ায় ভোট পড়ল ৮২ শতাংশ, উত্তর ২৪ পরগনায় ৭৪.৮৩ শতাংশ, পূর্ব বর্ধমানে ৮১.৭২ শতাংশ., কালিম্পংয়ে ৬৯.৫৬, দার্জিলিংয়ে ৭৪.৩১ ও জলপাইগুড়িতে ৮১.৮৩ শতাংশ  ভোট পড়েছে।

বিকেল ৫.০৮: আক্রান্ত কামারহাটির বিজেপি প্রার্থী রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। বেলঘড়িয়ার ব্রিজের উপর দিয়ে গাড়ি যাওয়ার সময় তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ। বিজেপি প্রার্থীর হাতে, বুকে চোট লাগে। বিজেপি প্রার্থীর অভিযোগের তীর তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তাঁর দাবি, “তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র হেরে গিয়েছেন বুঝতে পারছেন। তাই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। “

বিকেল ৫.০০: বিকেল সোয়া চারটে পর্যন্ত রাজ্যে ভোট পড়ল ৬৯.৪০ শতাংশ।

 

বিকেল ৪.৪১: বর্ধমানের নীলপুরে ফের উত্তেজনা। বিজেপির বিরুদ্ধে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ। এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। কেন্দ্রীয় বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। তখনই তাঁদের ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন মহিলারা। তৃণমূলের এক স্থানীয় নেত্রী পম্পা রায়কে মারধরের অভিযোগ উঠেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। 

বিকেল ৪.১০: বর্ধমান শহরের পাড়াপুকুরে বিজেপির ক্যাম্প অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ। পালটা তৃণমূলের কার্যালয়ে ভাঙচুর করে  বিজেপি। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায়। বিজেপির ক্যাম্পে সশস্ত্র বাহিনীর হামলা হয় বলে অভিযোগ। হামলায় বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী আহত হয়েছেন। বিজেপি কর্মীরা ক্যাম্পে বসে থাকার সময় অতর্কিতে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে।ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমান পৌরসভার ৭ নম্বর ওর্য়াডের ৯৪ নং বুথ পাড়াপুকুর এলাকায়। পালটা তৃণমূলের পার্টি অফিসে অতর্কিত হামলা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন বর্ধমান দক্ষিণের বিজেপি প্রার্থী খোকন দাস। তিনি অভিযোগ করেন, পুলিশের সামনে এই ঘটনা ঘটেছে। থানা ঘেরাওয়ের হুমকি দেওয়া হয়। পাশাপাশি তিনি দাবি করেন, তৃণমূলের কেউ বিজেপির ক্যাম্প অফিস ভাঙচুর করেনি। নিজেরাই ভাঙচুর করেছে।

বিকেল ৪.০২: গয়েশপুরে ঠাকুরনগরের বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুরকে ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ।  বিজেপি সাংসদের দাবি, “ছাপ্পাভোটের অভিযোগ পেয়ে এলাকায় এসেছিলাম। বাধা দেওয়াতেই অশান্তি বাঁধানো হয়।” তৃণমূলের পালটা দাবি, বিজেপি সাংসদ এলাকায় দুষ্কৃতী নিয়ে সন্ত্রাস ছড়ানোর চেষ্টা করছে। অভিযোগ, পালটা অভিযোগ ঘিরে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি হয় এলাকায়। রাজ্য পুলিশ ও কেন্দ্রীয়বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।   

দুপুর ৩.৪৭: সকালের পর ফের উত্তাল বিধাননগর শান্তিনগর। এবার ভুয়ো ভোটার ইস্যুতে গণ্ডগোল বাঁধল।

দুপুর ৩.২৮: দুপুর ৩টে ১৫ মিনিট পর্যন্ত বাংলায় ভোট পড়ল ৬২.৪০ শতাংশ।

দুপুর ৩.০৯: গয়েশপুরেও বোমাবাজির অভিযোগ। কাঠগড়ায় তৃণমূল কর্মীরা। বিজেপি সমর্থককে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়়ার অভিযোগ উঠেছে। চলে গুলিও। প্রতিবাদে লাঠি-বাঁশ হাতে রাস্তা অবরোধ করেন বিজেপি কর্মীরা।  

দুপুর ২.৪৫: ভোট দিয়ে ফেরার পথে তৃণমূল সমর্থককে গুলি চালানোর অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। নদিয়ার শান্তিপুরের ঘটনা।  অভিযোগ, রাজপুতপাড়া কালিপদ স্মৃতি প্রাথমিক বিদ্যাপীঠ স্কুলের বুথের এক কিলোমিটার দূরে ভোট দিয়ে এসে তৃণমূল সমর্থকরা বসে থাকার সময় দুষ্কৃতীরা প্রথমে বোমাবাজি করে। তারপর গুলি চালায়। সন্তু বাউড়ি নামে এক তৃণমূল সমর্থকের বাঁ হাতে গুলি লাগে। তিনি শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভরতি।

দুপুর ২.৩২: মিনাখাঁর আটপুকুরে বোমাবাজি, আহত ২ তৃণমূল কর্মী। উদ্ধার তাজা বোমা। সিপিএম, আইএসএফের বিরুদ্ধে অভিযোগ তৃণমূলের।

দুপুর ২.১৭: দেগঙ্গার কুড়লগাছায় গুলি চলেনি। রিপোর্ট খতিয়ে দেখে সিআরপিএফের দাবিকে মান্যতা দিল নির্বাচন কমিশন। 

দুপুর ১.৫২: শীতলকুচির পর ফের গুলি চালাল কেন্দ্রীয় বাহিনী। উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গা কুড়লগাছার বুথে অবৈধ জমায়েত সরাতে শূন্যে গুলি চালাল বাহিনী। ঘটনায় রিপোর্ট তলব কমিশনের। যদিও সিআরপিএফের দাবি, দেগঙ্গায় গুলি চলেনি।

দুপুর ১.৪৩: জলপাইগুড়ির পান্ডাপাড়ার বুথে ভোট দিলেন সাংসদ-অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। নির্দিষ্ট করোনাবিধি মেনে জনতাকে ভোটদানের আহ্বান তাঁর।

দুপুর ১.২৯: দুপুর ১টা পর্যন্ত দার্জিলিংয়ে ভোট পড়ল ৪২.০১ শতাংশ। উত্তর ২৪ পরগনায় গড় হার ৪৬ শতাংশেরও বেশি।

দুপুর ১.০৭: পঞ্চম দফা ভোটেও অশান্ত বাংলা, অব্যাহত হিংসা। করোনা সংক্রমণেও নাজেহাল দশা বঙ্গের। নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে ফের ক্ষোভ অধীর রঞ্জন চৌধুরীর। 

দুপুর ১২.৫২: বর্ধমান দক্ষিণের নীলপুরে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ। নামল RAF। আটক উভয়পক্ষের কয়েকজন। 

দুপুর ১২.৪৬: বরানগরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ৭৮ নম্বর বুথে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ। শুনে ঘটনাস্থলে যান বিজেপি প্রার্থী পার্ণো মিত্র। তৃণমূল কর্মীরা তাঁকে ধাক্কাধাক্কি করে বলে অভিযোগ। ওঠে ‘গো ব্যাক’ স্লোগানও। তাঁর গাড়িতে ভাঙচুর চলে বলে অভিযোগ। পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

দুপুর ১২: সল্টলেকের নয়াপট্টিতে নতুন করে উত্তেজনা। স্থানীয় তৃণমূল নেতা জয়দেব নস্করের সঙ্গে বচসা বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্তর। তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ। তৃণমূলের অভিযোগ, বুথে ঘুরে ঘুরে ভোটারদের প্রভাবিত করছেন বিজেপি প্রার্থী। 

বেলা ১১.৫২: ভোট দেওয়ার পর ইভিএমের ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে বিতর্কে চাকদহের বিজেপি নেতা সাধন বিশ্বাস। নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগে কমিশনের দ্বারস্থ তৃণমূল মুখপাত্র ডেরেক ও ব্রায়েন।

বেলা ১১.৪২: বেলা ১১ টা পর্যন্ত ৬টি কেন্দ্রের ভোটদানের গড় হার ৩৬ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে জলপাইগুড়িতে, ৩৯ শতাংশ।  দার্জিলিংয়ে ৩৪ শতাংশ, পূর্ব বর্ধমানে ৩৬ শতাংশ ভোট পড়ল।

বেলা ১১.৩৫: চাকদহে খোলা রাস্তায় আগ্নেয়াস্ত্র হাতে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল নির্দল প্রার্থীকে। অভিযোগ স্থানীয়দের। পুলিশের দাবি, তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি দেশি পিস্তল। ভোটের দিন অশান্তির জন্যই এই কাজ, আতঙ্কে ভোটাররা। 

বেলা ১১.২০: রাজারহাট-নিউটাউনে নিজের কেন্দ্রে ভোট দিলেন অভিনেত্রী তথা বেহালা পূর্বের বিজেপি প্রার্থী পায়েল সরকার। 

বেলা ১১.১৫: কামারহাটির বুথে ভোট চলাকালীন উত্তেজনা। ঘটনাস্থলে গিয়ে বুথ পরিদর্শন করলেন বারাকপুর কমিশনারেটের CP অজয় নন্দা। জানালেন, স্বচ্ছ, অবাধ ভোটপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে তৎপর পুলিশ প্রশাসন।

বেলা  ১১.০৮: মানুষ উৎসবের মেজাজে ভোট দিচ্ছেন। সমাজবিরোধীরা ঘরে ঢুকে পড়েছেন, বেরিয়ে এসেছে জনগণ। তাঁদের স্বতঃস্ফূর্ত সাড়াকে অভিনন্দন জানালেন কামারহাটির সিপিএম প্রার্থী সায়নদীপ মিত্র। দিনভর এই শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতি বজায় রাখার আবেদন তাঁর। 

বেলা ১১.০৪: শিলিগুড়ির বিজেপি প্রার্থী শকংর ঘোষকে বুথে ঢুকতে বাধাদানের অভিযোগ। তাঁর এজেন্টকেও বাধা দেওয়ার অভিযোগ। 

সকাল ১০.৫২: ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি বিধানসভার শোভাভিটা ২৯৬ নং বুথের ৫০ মিটারের মধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী ভোটারদের প্রভাবিত করছে। বিজেপিকে ভোট দিতে বলছে বলে অভিযোগ তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেবের। তাঁর সঙ্গে বচসা বাহিনীর জওয়ানদের।

সকাল ১০.৩০: হঠাৎ দেখা! শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবের সামনে সাক্ষাৎ দমদম ও বিধাননগরের দুই হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থী, রাজ্যের বিদায়ী মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, সুজিত বসুর। একে অপরকে আলিঙ্গন করে জয়ের শুভেচ্ছা জানালেন। 

ছবি: গোপাল দাস

সকাল ১০.২২: হিংসা দিয়ে উন্নয়ন হয় না। এ রাজ্য়ে বিজেপির তেমন জনসমর্থন নেই, তৃণমূলই জিতবে। ভোট দিয়ে পাতলেবাসের বাড়িতে বসে বললেন বিমল গুরুং।

সকাল ১০.০৪: সল্টলেকের শান্তিনগরে অশান্তি। তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ, ইট ছোঁড়াছুঁড়ি। আহত মহিলারাও। রাস্তা ভরতি ইট, চরম বিশৃঙ্খলা। দুই প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত ও সুজিত বসু একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন। দেখা মেলেনি কেন্দ্রীয় বাহিনীর। 

সকাল ৯.৫৯: মন্তেশ্বর বিধানসভার অন্তর্গত মেমারি-২ ব্লকের মিনাপুর বুথে ভোটারকে লাঠি দিয়ে মারধরের অভিযোগ কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। অভিযোগ মেমারি-২ ব্লক তৃণমূল সভাপতি মহম্মদ ইসমাইলের।

সকাল ৯.৪০: সকাল ৯ টা পর্যন্ত ৬ জেলায় ভোটদানের হার ১৬ শতাংশ। দার্জিলিং ও কালিম্পংয়ে ভোট পড়ল গড়ে ১৪ শতাংশ, জলপাইগুড়িতে ভোট ১৮ শতাংশ, পূর্ব বর্ধমান ও নদিয়ায় গড়ে ১৬ শতাংশ ভোট পড়ল।

সকাল ৯.২০: মিনাখাঁর তেলিনিপাড়ার ৮০ নং বুথে বিজেপির পোলিং এজেন্ট ধানু ভুুঁইঞাকে অপহরণের অভিযোগ। ভোটারদের ভয় দেখিয়ে ভোটদানে বাধা, কাঠগড়ায় তৃণমূল। প্রতিবাদে পথ অবরোধ। 

সকাল ৯.১৪: নিউটাউনের বাবলাতলা এলাকায় ১৮ ও ১৯ নং বুথে ভোটারদের বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। সিপিএমের তোলা অভিযোগ ঘিরে তোলপাড়।

সকাল ৯.০৭: বিজেপি ও সিপিএমের ভয়েই মাথায় হেলমেট পড়ে ভোটের ময়দানে বুথ পরিদর্শনে মন্তেশ্বর বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী।মন্তেশ্বরের গলাতুন গ্রামের ৪০ ও ৪১ নং বুথে এজেন্ট বসতে না দেওয়া ও চার তৃণমূল কর্মীকে মারধরের অভিযোগ।

সকাল ৯: রাজারহাট-গোপালপুরের বিভিন্ন বুথ পরিদর্শন করলেন তৃণমূল প্রার্থী অদিতি মুন্সি। ভোটদানের পাশাপাশি করোনাবিধি মেনে, মাস্ক পরার আবেদন তাঁর।  দক্ষিণপাড়া চিলড্রেন পার্কে দিলেন ভোট।

সকাল ৮.৫৮: বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা দুবরাজদিঘি হাই স্কুলে ৩৭ নং বুথে বিজেপি কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

সকাল ৮.৫২: ভোটের সকালে পতাকা ছিঁড়ে দেওয়ার ঘটনা ঘিরে উত্তেজনা রায়না বিধানসভার ফকিরপুর এলাকায়। ৭২ নম্বর বুথের সামনে বিজেপি ও তৃণমূলের কর্মীদের মধ্যে হাতাহাতি।
একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হলেও অভিযোগ অস্বীকার উভয়পক্ষের। অভিযোগ, তৃণমূলের পতাকা ছিঁড়ে দিয়েছে বিজেপি। তা নিয়েই দু’পক্ষের হাতাহাতি শুরু হয়। 

সকাল ৮.৪৫: ভোটের দিন কামারহাটিতে প্রচুর বহিরাগত ঢুকিয়েছে বিজেপি। বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রর। অভিযোগ, একটি বুথে গেলে তাঁর দেহ তল্লাশি করে কেন্দ্রীয় বাহিনী। জওয়ানদের সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটিতে ছড়াল উত্তেজনা।

সকাল ৮.৪১: লেকটাউনের কালিন্দীতে সাধারণ ভোটারদের সঙ্গে ভোটের লাইনে দমদমে তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী ব্রাত্য বসু।

সকাল ৮.৩৮: বুথ পরিদর্শনে বিধাননগরের তৃণমূল প্রার্থী সুজিত বসু। বাড়ি থেকে পুজো করে বেরলেন তিনি। কালিন্দীর বুথে প্রবেশে বাধা পেলেন তিনি। কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি তাঁর। বুথে দাঁড়িয়েই নির্বাচন কমিশনের অফিসারকে ফোন সুজিত বসুর।

সকাল ৮.৩৪: মিনাখাঁয় ভোটারদের ভোটদানে বাধাদানের অভিযোগ। মাঝপথ থেকে মহিলারা বাড়ি ফিরলেন। তৃণমূলের বিরুদ্ধে বাধাদানের অভিযোগ। 

সকাল ৮.২৯: সকাল থেকে বিধাননগরের বুথে বুথে ঘুরছেন বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত। নয়াপট্টিতে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ তাঁর সঙ্গীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির পালটা অভিযোগ,  বহিরাগতরা কেন্দ্রে এসে ভোটারদের প্রভাবিত করছে। 

সকাল ৮.২৫:  সকাল সকাল ভোট দিলেন ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী তথা রাজ্য়ের বিদায়ী মন্ত্রী  গৌতম দেব।

 

সকাল ৮.২০: বসিরহাট উত্তরে আইএসএফ এজেন্টকে বুথে বসতে বাধাদানের অভিযোগ। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ। 

সকাল ৮.০৬: শিলিগুড়ির নেতাজি বয়েজ স্কুলে সস্ত্রীক ভোট দিলেন বাম প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্য। 

সকাল ৮.০১: আজ ভাগ্যপরীক্ষা। সাতসকালে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে পুজো দিলেন কামারহাটি কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র। নির্দিষ্ট বুথে ভোট দিয়ে নিজে বেরলেন বুথ পরিদর্শনে।

সকাল ৭.৫৭: ভোট শুরু হতেই একাধিক কেন্দ্রের বুথে ইভিএম খারাপের খবর। শুরুই হতে পারল না ভোটগ্রহণ। 

সকাল ৭.৫৩: পাহাড়ে ভোট উৎসব। পঞ্চম দফার ভোটে শামিল কালিম্পং, দার্জিলিংবাসী। ভোটার লাইনে GNLF নেতা মন ঘিসিং বিজেপির পক্ষে সওয়াল করে বলেন, ”খেলা তো সবে শুরু। আমরা বিজেপির সরকার চাই, বিচার চাই।” 

সকাল ৭.৪০: তিন বছর ফেরার থাকার পর ফের গণতন্ত্রের উৎসবে পাহাড়ের একদা প্রতাপশালী নেতা বিমল গুরুং। সকালেই পাতলেবাসে, বাড়ির সামনের বুথে সস্ত্রীক দিলেন ভোট। তাঁকে ঘিরে উৎসাহী মোর্চা সদস্য়দের একাংশ। 

সকাল ৭.২৫: কল্যাণীর গয়েশপুর বাইপাসে সুকান্তনগরের ভোটারদের বাধা দেওয়ার অভিযোগ। প্রতিবাদে ভোটার কার্ড হাতে রাস্তায় বসে অবরোধ স্থানীয়দের। কেন্দ্রীয় বাহিনীর দেখা মেলেনি, অভিযোগ তাঁদের। বেশ কিছুক্ষণ পর কেন্দ্রীয় বাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। তবে আতঙ্কিত ভোটাররা। আতঙ্ক কাটাতে গ্রামে পৌঁছয় কেন্দ্রীয় বাহিনী। 

সকাল ৭.২০: রাজারহাট-গোপালপুর কেন্দ্রের অন্তর্গত কেষ্টপুরের এক বুথে সকাল থেকে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। 

 

সকাল ৭.১৩: পানিহাটির ১১২ নং বুথে উত্তেজনা। বুথের ভিতর থেকে বিজেপির পোলিং এজেন্টকে বের করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে।

সকাল ৭.১০: জলপাইগুড়ির ফুলবাড়ির এক বুথে বিজেপির পোলিং এজেন্টকে বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। 

সকাল ৭.০৫: কল্যাণীর কাঁটাগঞ্জে ভোট শুরু হতে না হতেই উত্তেজনা। বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ। পাশাপাশি গয়েশপুরে বিজেপি কর্মীদের দোকান ভাঙচুরের অভিযোগ।

সকাল ৭: বঙ্গে শুরু পঞ্চম দফার ভোটদান পর্ব। সকাল থেকেই বিভিন্ন বুথে শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে ভোটের লাইনে জনতা।

সকাল ৬.৫২: কামারহাটি এবং রাজারহাট-নিউটাউন কেন্দ্রে ভোট শুরুর আগেই বিপত্তি। বেশ কয়েকটি ইভিএম খারাপ। 

সকাল ৬.৪১: বর্ধমান উত্তর কেন্দ্রে বিজেপি এজেন্ট, কর্মীকে মারধরের অভিযোগ। অজিত সোরেন ও সুব্রত ঘোষকে মারধর। বর্ধমান উত্তর কেন্দ্রের সরাইটিকর প্রাথমিক স্কুলের বুথের ঘটনা। ব্যাপক মারে মাথা ফেটেছে অজিত সোরেনের। আহত অবস্থায় তাঁরা ভরতি বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ।

সকাল ৬.৩৭: মিনাখাঁয় আক্রান্ত বিজেপির এজেন্ট। বুথে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তাঁকে মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ।

সকাল ৬.৩৪: নিউটাউনের তারুলিয়ায় তৃণমূল এজেন্টের বাইকে আগুন। বুথে বসা আটকাতে আগুন লাগানো হয়েছে বলে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব শাসকদলের প্রতিনিধিরা। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে ভোটারদের মধ্যে।

সকাল ৬.৩০: সকাল হতেই ভোটকেন্দ্রের বাইরে ভোটারদের লাইন। গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

সকাল ৬.২৬: ভোট ‘উৎসব’। শিলিগুড়ির একটি বুথকে মডেল বুথ হিসেবে সাজানো হয়েছে। জনতাকে ভোটদানে উৎসাহী করতেই এই ব্যবস্থা, জানালেন কর্তারা।

সকাল ৬.২০: সল্টলেকের সুকান্তনগরে বিজেপি কর্মীকে ধারালো অস্ত্রের কোপ। খুনের চেষ্টার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

সকাল ৬: ভোট শুরুর আগেই আক্রান্ত রানাঘাট উত্তর-পূ্র্বের তৃণমূল প্রার্থী সমীর পোদ্দার। তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজির অভিযোগ। প্রতিবাদে পথ অবরোধ করেন তৃণমূল কর্মীরা। 

[আরও পড়ুন: কয়লা ও গরু পাচার কাণ্ড: বিনয় মিশ্রের ভাই বিকাশকে সাতদিনের রিমান্ডে পেল CBI]

Advertisement
Next