Advertisement

‘বলিউড বহু প্রতিভাকে পিষে নষ্ট করেছে, গন্ডারের চামড়া বলে টিকে আছি’, বিস্ফোরক মনোজ বাজপেয়ী

07:05 PM Jun 26, 2020 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “বলিউড এমন সব প্রতিভাকে পিষে নষ্ট করেছে যে, তাঁরা আজ অন্য দেশে জন্মালে নিঃসন্দেহে খ্যাতনামা অভিনেতা হতে পারতেন! বলিউড যদি নিজের এই অভ্যেস ত্যাগ না করে, তাহলে কিন্তু খুব শিগগিরিই মানুষের শ্রদ্ধা, ভালবাসা হারিয়ে ফেলবে”, ইন্ডাস্ট্রির স্বজনপোষণ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য মনোজ বাজপেয়ীর। তাঁকে সাধারণত কোনও ইস্যু নিয়েই খুব একটা সরব হতে দেখা যায় না! কাজ ছাড়া কথাবার্তাও খুব মেপে বলেন। তাঁর মতো বড় মাপের সেই অভিনেতাই কিনা ২০ বছর ধরে মুম্বই ইন্ডাস্ট্রিতে স্বজনপোষণের (Nepotism) শিকার হয়ে আসছেন।

Advertisement

অবিশ্বাস্য, মনে হলেও বিষয়টি যে সত্যি, তা মনোজ বাজপেয়ীর (Manoj Bajpayee) কথাতেই বোঝা গেল। “বছর কুড়ি ধরেই আমি বলে আসছি যে, বলিউডের চিন্তধারা কীরকম একটা মাঝারি গোছের! শুধু বলিউডই কেন, গোটা দেশই তো এই একই ধ্যান-ধারণায় চলে। আসলে আমাদের মূল্যবোধ আর চিন্তাধারাতেই কোথাও একটা বিরাট খামতি রয়েছে, জানেন! প্রতিভা দেখলেই আমরা হয় তা অবজ্ঞা করি কিংবা পিষে দিয়ে সেই ট্যালেন্টকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। খুবই ঘৃণ্য এই চিন্তাধারা”, মন্তব্য অভিনেতার। প্রসঙ্গত, সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে ‘সোনচিড়িয়া’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। আর অভিনেতার এমন মর্মান্তিক পরিণতি যে তাঁকেও ভাবিয়ে তুলেছে, তা স্পষ্ট তাঁর কথায়।

[আরও পড়ুন: ‘দেশের সিংহভাগ মানুষই তো শ্যামলা, ফর্সা করার মিথ্যে স্বপ্ন দেখায় কী করে?’ বিস্ফোরক বিপাশা ]

Advertising
Advertising

বলিউডে টিকে থাকতে গেলে কি শুধু অভিনয়ের দক্ষতা থাকলেই হয়? এই প্রশ্নের উত্তরে মনোজ বাজপেয়ী (Manoj Bajpayee) যা বললেন, তা সকলের কাছেই শিক্ষামূলক। বললেন, “আমার গন্ডারের চামড়া বলে টিকে রয়েছি ইন্ডাস্ট্রিতে। আর অন্য মায়ের ছেলে বলে! নাহলে টিকে থাকতে পারতাম না। ছোট বাজেটের সিনেমাগুলির সেভাবে প্রচারই করা হয় না বলিউডে। আর কন্টেন্টের জন্য যদিও বা হলে ভাল চলতে শুরু করে, তাহলে পরক্ষণেই সিনেমা হল থেকে সেগুনি তুলে দেওয়া হয়!”

[আরও পড়ুন: এবার বাংলা সিরিয়ালেও ঢুকে পড়ল মারণ ভাইরাস! করোনার কালবেলায় বদল এল চিত্রনাট্যে]

The post ‘বলিউড বহু প্রতিভাকে পিষে নষ্ট করেছে, গন্ডারের চামড়া বলে টিকে আছি’, বিস্ফোরক মনোজ বাজপেয়ী appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next