Advertisement

‘যাঁদের কাছে মা রয়েছে তাঁদের দেখলে এখন একটু হিংসেই হয়’, কেন একথা শ্রীলেখার মুখে?

08:59 PM May 13, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মা। ছোট্ট এই শব্দের সঙ্গে কতই না আবেগ জড়িয়ে। দিনের শেষের এমন এক আশ্রয় যেখানে নিশ্চিন্তে সমস্ত কিছু ভুলে থাকা যায়। করোনা ভাইরাসের (Corona Virus) মারণ থাবার নিশ্চিন্তের সেই আশ্রয় হারালেন শতরূপ ঘোষ (Shatarup Ghosh)। শতরূপের এই যন্ত্রণা খুব ভাল ভাবে বুঝতে পারছেন শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। কারণ কাছের এই মানুষটিকে হারিয়েছেন তিনিও।

Advertisement

ফেসবুকে শতরূপকে ট্যাগ করে শ্রীলেখা লিখেছেন, “কিছুদিন আগেই আমরা সবাই হইচই করে হ্যাপি মাদার্স ডে পালন করলাম। যাদের মা চলে গিয়েছে মাকে হারানোর যন্ত্রণা কতটা সেটা শুধু তারাই জানবে। মা বলে ডাকটাই তাদের জীবন থেকে হারিয়ে গেছে সারাজীবনের মতো। মায়ের বুকে মুখ গুজে লুকিয়ে সব কষ্ট ভুলে যাওয়ার আশ্রয়টা আজ পাস্ট টেন্স হয়ে গেছে তাদের জীবনে। শতরূপ ঘোষ ভাল থেকো। তোমার মা সেটাই চাইবেন। বাবাকে দেখো এই সময় ওনারা বড় অসহায় হয়ে পড়েন দীর্ঘজীবনের সাথীকে হারিয়ে। ভালবাসা পাঠালাম।”

[আরও পড়ুন: ভাইজানের ক্যারিশমা! ‘রাধে’ মুক্তি পেতেই ইউজারদের চাপে ক্র্যাশ করল Zee 5-এর সার্ভার]

এ বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে ফোনে শ্রীলেখা মিত্র জানান, যাঁদের কাছে মা রয়েছে তাঁদের দেখলে এখন একটু হিংসেই হয় তাঁর। কারণ মা বলে ডাকার, আবদার সুখ পাচ্ছেন তাঁরা। মাত্র ৬৫ বছর বয়েসে প্রয়াত হয়েছেন শ্রীলেখা মিত্রর মা। একটু সময় চাইতেন তাঁর কাছে। কিন্তু কাজের ব্যস্ততায় তা কখনও সেভাবে দিয়ে উঠতে পারেননি। সেই আফশোস রয়ে গিয়েছে শ্রীলেখা মিত্রর। তাই এখন বাবাকে সারাক্ষণ আগলে রাখেন অভিনেত্রী। শতরূপ ঘোষকেও ফেসবুকে সেই পরামর্শই দিয়েছেন তিনি। নিজের অভিজ্ঞতা থেকে দেখেছেন, দীর্ঘ সময়ের সঙ্গীকে হারিয়ে মানুষ কত একলা হয়ে যেতে পারে। সেই একাকীত্বকে দূর করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। শতরূপের পরিবারে তিনজনই করোনা (Corona Virus) আক্রান্ত হয়েছিলেন। তরুণ বাম নেতা এবং তাঁর বাবা এখন অনেকটাই ভাল আছে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: অতিমারীর আবহে খুশির খবর, মা হলেন অভিনেত্রী সোনালি চৌধুরী ]

Advertisement
Next