টিভিতে আফগানিস্তানের অবস্থা দেখে গা গুলিয়ে উঠছে: Indrani Haldar

07:16 PM Aug 19, 2021 |
Advertisement

সুপর্ণা মজুমদার: তালিবানি সন্ত্রাসে বিপর্যস্ত আফগানিস্তান (Afghanistan)। আফগানিস্তানের অসহায় মানুষদের অসহায়তার চিত্র গোটা বিশ্বের নজরে। দেশ ছেড়ে পালানোর জন্য উদভ্রান্ত হয়ে ছুটছে মানুষ। বিমানবন্দর চত্বরেই পড়ে রয়েছে ছোট্ট শিশু। প্রাণ বাঁচানোর লড়াইয়ে সেই দেশের মানুষ। আফগানিস্তানের এই বীভৎস ছবি দেখে রাগ, ক্ষোভ সামলে নেওয়া বেশ কঠিন। ঠিক এমনই অনুভূতি টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদারের (Indrani Haldar)। সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালকে ইন্দ্রাণী জানালেন, টিভিতে ছবি ও ভিডিওগুলো দেখে বিস্মিত হচ্ছি!

Advertisement

ইন্দ্রাণী জানালেন, ‘এ ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। অত্যন্ত জঘন্য। টিভির পর্দায় তাকানো যাচ্ছে না। বিমানবন্দরে পড়ে থাকা বাচ্চার ছবিটা দেখে তো কিছুক্ষণের জন্য থমকে গিয়েছিলাম। গায়ে কাঁটা দিচ্ছিল। আতঙ্কে গা গুলিয়ে উঠছিল আফগানিস্তানের মানুষের অবস্থা দেখে। আমি ভাবতেই পারছি না। চোখে দেখা ছবি, ভিডিওগুলো যে সত্যি হতে পারে, বিশ্বাস হচ্ছে না।’

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: Afghanistan-এ তালিবানি তাণ্ডব, ভারতের কী করা উচিত? মতামত জানালেন টলিপাড়ার তারকারা]

ইন্দ্রাণী হালদারের কথায়, ‘তবে এই সময়ে আমার দেশ যে অসহায় আফগান মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছে সেটা সত্যিই একটু নিশ্চিন্ত করে। অন্তত আমার দেশ তো চেষ্টা করছে বিপদে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়াতে। তবে কূটনৈতিক দিক থেকে ভারতের কী করা উচিত সেটা নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। একজন মানুষ হিসেবে, আফিগানিস্তানের এই ঘটনাকে সমর্থন করি না। আর আমার দেশ যেটা করছে একজন ভারতীয় নাগরিক হিসেবে সেটাকে প্রশংসা করি।’

এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে সরকার গঠনের কথা ঘোষণা করেনি তালিবান। তবে আফগানিস্তান যে ইসলামিক আমিরশাহী হয়ে উঠবে তা স্পষ্ট। তবে সব পক্ষকে সঙ্গে নিয়ে সরকার গঠনের কথা বলেছে জঙ্গিগোষ্ঠীটি। এই বিষয়ে দেশের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই, আফগান নেতা আবদুল্লা আবদুল্লা ও ‘ওয়ারলর্ড’ তথা প্রাক্তন মুজাহিদ নেতা গুলবুদিন হেকমতিয়ারের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে তালিবান। মঙ্গলবারই কাতারের রাজধানী দোহা থেকে দেশে ফিরেছে তালিবানের সহ-প্রতিষ্ঠাতা আবদুল ঘানি বরাদর। তবে কাবুল বিমানবন্দর এখনও আমেরিকার হাতে থাকায় আরও তালিবানি নেতাদের দেশে ফিরতে কিছুটা দেরিই হচ্ছে। সবমিলিয়ে, এই মুহূর্তে কাবুল জুড়ে চরম অনিশ্চয়তা। সেই দেশের অবস্থা, আমজনতার দুর্দশার কথা বেশ অনুভব করতে পারছেন ইন্দ্রাণী।

[আরও পড়ুন: ‘CAA কতটা জরুরি বুঝিয়ে দিল Afghanistan’, মন্তব্য Kangana’র]

Advertisement
Next