Advertisement

পরপর ফ্লাইট বাতিল! কীভাবে ফিরবেন বাড়ি? বাগডোগরা বিমানবন্দরে দুশ্চিন্তায় পায়েল-দ্বৈপায়ন

02:23 PM Oct 22, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অভিনেত্রী পায়েল ও অভিনেতা দ্বৈপায়নের পায়ের তলায় সরষে। সুযোগ পেলেই ঘুরতে চলে যান। এ ব্যাপারে পাহাড় তাঁদের প্রথম পছন্দ। পুজোর সময় শুটিংয়ের কাজ বন্ধ থাকে। তাই এই ছুটিকে কাজে লাগিয়ে কালিম্পঙে ঘুরতে গিয়েছিলেন পায়েল ও দ্বৈপায়ন। কিন্তু ঘুরতে গিয়ে যে এরকম বিপাকে পড়তে হবে, তা আন্দাজও করতে পারেননি। প্রথমে স্বামী দ্বৈপায়ন, সন্তান মেরাখ, শ্বশুর, শাশুড়িকে নিয়ে কালিম্পংয়ের কাছে টাকনা নামের একটি গ্রামের গেস্ট হাউজে ছিলেন অভিনেত্রী। ভারী বৃষ্টির কারণে ঘরবন্দি ছিলেন। ২০ অক্টোবর পাহাড় থেকে সমতলে নামতে না পারায় ট্রেন ধরতে পারেননি। ঠিক কী করা উচিত, তা বুঝতেই পারছিলেন না। তারপর অনেক কষ্টে গাড়ি জোগাড় করে ২১ তারিখ কালিম্পং থেকে নেমে আসেন পায়েল ও দ্বৈপায়ন। ২১ তারিখ রাত কাটান শিলিগুড়িতেই। ভেবেছিলেন এবার বুঝি শান্তিতে বাড়ি ফিরতে পারবেন। সেই মতো বিমানের টিকিটও বুক করা হয়। কিন্তু তা আর হল কোথায়? সকাল সকাল বাগডোগরা বিমানবন্দরে এসে বিপত্তি আরও বাড়ল।

Advertisement

বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেছেন পায়েলের স্বামী অভিনেতা দ্বৈপায়ন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ছোট্ট মেরাখকে নিয়ে সিঁড়ির ধাপে বসে আছেন দ্বৈপায়নের মা।

[আরও পড়ুন: হলিউড ছবিতে কাশ্মীর নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, নেটদুনিয়ায় সুপারম্যানকে বয়কটের ডাক]

বাগডোগরা থেকে সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালকে ফোনে অভিনেত্রী পায়েল জানালেন, ‘অনেক কষ্টে আমরা পাহাড় থেকে নেমে তো এলাম। ভেবেছিলাম এবার হয়তো শান্তিতে বাড়িতে ফিরব। কিন্তু বিমানবন্দরে এসে দেখি, সব বিমানের সময় বার বার পিছিয়ে যাচ্ছে। প্রচুর বিমান বাতিল হচ্ছে। আমাদের ফ্লাইট ছিল বেলা ১১.৪৫-এ। জানি না কী হবে! খুবই দুশ্চিন্তা হচ্ছে। আমাদের লাগেজও চেক ইনে চলে গিয়েছে। তাই এখন দুম করে বিমানবন্দর থেকে বের হতেও পারব না। এয়ারলাইন্সের তরফ থেকেও এখনও কিছু জানানো হয়নি। তার উপর বিমানবন্দরে থিক থিক করছে যাত্রী। বসার জায়গাটুকুও নেই। খুবই দুশ্চিন্তা হচ্ছে। অনেক হয়েছে এবার শান্তিতে বাড়ি ফিরতে চাই।’

[আরও পড়ুন: অস্কারের দৌড়ে ভিকির ‘সর্দার উধম ‘, বিদ্যার ‘শেরনি’, কে হাসবে শেষ হাসি?]

Advertisement
Next