চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে বিধ্বস্ত বার্সেলোনা, এমবাপের জোড়া গোলে সেমিফাইনালে সাঁ জাঁ

01:07 PM Apr 17, 2024 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে নিষ্প্রভ দেখিয়েছিল প্যারিস সাঁ জাঁর তারকা কিলিয়ান এমবাপেকে। সেই এমবাপেই জ্বলে উঠলেন বার্সার ঘরের মাঠ এস্তাদি অলিম্পিকে। 
বার্সেলোনার (Barcelona) বিরুদ্ধে কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে এমবাপে (Kylian Mbappe) জোড়া গোল করলেন। এর আগেও বার্সার মাঠে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ফরাসি তারকা। এমবাপে সম্মোহীত করে রাখলেন বার্সাকে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে সাঁ জাঁ ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করল বার্সেলোনাকে। ম্যাচ হারার যন্ত্রণা লেগেছিল ভক্ত-অনুরাগীদের চোখেমুখে। দুপর্ব মিলিয়ে ৬-৪ গোলে সাঁ জাঁ ম্যাচ জিতে নেওয়ায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে থেমে গেল বার্সার দৌড়। সেমিফাইনালে পিএসজি-র (PSG) সামনে এবার বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।  

Advertisement

[আরও পড়ুন: রামনবমীতে সম্পন্ন রামলালার দিব্য অভিষেক, ভক্তের ঢল অযোধ্যায়]


বার্সেলোনা-পিএসজি ম্যাচে ছিল উত্তেজনা। রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়েও তৈরি হয় বিতর্ক। ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন ইস্তভান কোভাক্স। দুদল মিলিয়ে মোট ১২টি কার্ড দেখিয়েছেন তিনি। তার মধ্যে লাল কার্ডই ৩টি। কোভাক্স লাল কার্ড দেখান বার্সার কোচ জাভিকেও। বাদ যাননি তাদের গোলকিপার কোচও।
প্রথম লেগে পিএসজির ঘরের মাঠে গিয়ে বার্সেলোনা ৩-২ গোলে ম্যাচ জিতেছিল। দ্বিতীয় লেগেও একটা সময়ে বার্সাই প্রাধান্য দেখাচ্ছিল। ১২ মিনিটে  রাফিনিয়া গোল করে এগিয়ে দেন বার্সাকে। দুপর্ব মিলিয়ে বার্সেলোনা তখন ৪-২ গোলে এগিয়েছিল। সবাই ধরেই নিয়েছিলেন বার্সেলোনাই যাচ্ছে শেষ চারে। 
২৯ মিনিটে বার্সা নেমে যায় ১০ জনে। রোনাল্ড আরাউজোকে লাল কার্ড দেখানো হয়। নিউমেরিক্যাল অ্যাডভান্টেজের সুবিধা নেয় পিএসজি। ৪০ মিনিটে পিএসজি-র হয়ে সমতা ফেরান দেম্বেলে। উল্লেখ্য, বার্সা ছেড়ে দেম্বেলে পিএসজি-তে যান।
সেই দেম্বেলেই তাঁর প্রাক্তন ক্লাবের জালে বল জড়ান। দ্বিতীয়ার্ধে লেখা হয় অন্য চিত্রনাট্য। বার্সাকে চূর্ণ করে প্যারিস সাঁ জাঁ। ৫৪ মিনিটে হাকিমির কাছ থেকে বল পেয়ে পিএসজি-কে ২-১-এ এগিয়ে দেন ভিটিনহা।  
এর সাত মিনিট পরেই পেনাল্টি পায় পিএসজি। দেম্বেলেকে পেনাল্টি বক্সে ফেলে দিলে পেনাল্টি পায় সাঁ জাঁ। পেনাল্টি থেকে গোল করে এমবাপে ৩–১ করেন। আরও একটা নজিরও গড়লেন ফরাসি তারকা। প্রথম ফুটবলার হিসেবে  চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা পাঁচ ম্যাচ স্প্যানিশ ক্লাবের মাঠে গোল করে রেকর্ড গড়েন। গোলের সুযোগ নষ্ট করেন লেওয়নডস্কি। ৮৯ মিনিটে এমবাপে ফের গোল করে সাঁ জাঁর কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন। বার্সার প্রাক্তন কোচ ছিলেন এনরিকে। তাঁর হাত ধরেই ট্রেবল জিতেছিল বার্সেলোনা। সেই এনরিকেই থামিয়ে দিলেন বার্সার দৌড়। 

 

[আরও পড়ুন:এখনও বাকি সেমিফাইনাল-ফাইনাল, হাবাসের আপত্তিতে পিছোল মোহনবাগানের উদযাপন]

Advertisement