Advertisement

ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা শতাধিক পাক জঙ্গির, সেনা দিবসে সতর্ক করলেন সেনাপ্রধান

10:15 PM Jan 15, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: LOC বরাবর লঞ্চপ্যাডগুলো থেকে ভারতে অনুপ্রবেশের জন্য লাগাতার চেষ্টা চালাচ্ছে ৩০০ থেকে ৪০০ জন পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি। তবে সদা সতর্ক রয়েছে ভারতীয় সেনা। কোনওভাবেই যাতে জঙ্গিরা এদেশে ঢুকতে না পারে, সেজন্য সীমান্তে কড়া নজরদারি চালাচ্ছেন জওয়ানরা। শুক্রবার সেনা দিবস বা আর্মি ডে-র (Army Day) অনুষ্ঠানে এসে একথাই বললেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে (General Manoj Mukund Naravane)।

Advertisement

দিল্লিতে (Delhi) আয়োজিত অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জঙ্গিদের ভারতে অনুপ্রবেশে মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলে নারাভানে বলেন, “পাকিস্তান ড্রোন এবং সুড়ঙ্গের মাধ্যমে ভারতে অস্ত্র, গোলাবারুদ পাচার করছে। তবে সীমান্তে আমাদের জওয়ানরা পাকিস্তানের সমস্ত কার্যকলাপের বিরুদ্ধে নজর রাখছে। অনুপ্রবেশ রুখতে ভারতীয় সেনা কড়া পদক্ষেপ করেছে। সেই কারণে লঞ্চপ্যাডে অপেক্ষারত জঙ্গিরাও এদেশে অনুপ্রবেশ করতে পারছে না।”

[আরও পড়ুন: কেন্দ্রের সঙ্গে কৃষকদের নবম বৈঠকেও মিলল না রফাসূত্র, কৃষি আইন নিয়ে অব্যাহত জট]

এর পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ভারতীয় সেনার সন্ত্রাসদমন অভিযানে অন্তত ২০০ জঙ্গি গত একবছরে মারা গিয়েছে। এছাড়া উত্তর-পূর্বে অন্তত ৬০০ জন চরমপন্থী আত্মসমর্পণ করেছে, উদ্ধারও হয়েছে প্রচুর অস্ত্র। এরপর মায়ানমারে ভারতীয় সেনার জঙ্গি দমনে সফল অভিযানের কথাও উল্লেখ করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘অনুদান দেব মন থেকে, প্রচার চাই না’, রাম মন্দিরের জন্য অর্থ সংগ্রহের শরিক ইকবাল আনসারিও]

তবে এদিনের অনুষ্ঠানে জঙ্গিদের মদত দেওয়াই শুধু নয়, লাগাতার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের জন্য পাকিস্তানকে দুষেছেন সেনাপ্রধান। নারাভানে বলেন, “গত একবছরে পাকিস্তান ৪৭০০ বারেরও বেশি সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে গোলাগুলি ছুঁড়েছে। যা কিনা গত ১৭ বছরে সর্বোচ্চ।” ২০১৯ সালে যেখানে ৩৬১৮ বার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছিল পাক সেনা, সেখানে গত বছরে তা বেড়েছে অন্তত ৪৪ শতাংশ।

 

 

Advertisement
Next