Advertisement

Goa Election 2022: ভোটের বাদ্যি গোয়ায়, আজ অভিষেকের উপস্থিতিতেই তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার সম্ভাবনা

09:05 AM Jan 17, 2022 |

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: চারদিনের সফরে আজ, সোমবার গোয়া যাচ্ছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। রবিবার সন্ধে পর্যন্ত যে কর্মসূচি স্থির হয়েছে, তাতে সোমবারই ভোটমুখী গোয়ায় (Goa Election 2022) তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দেওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে তাঁর। এরপর চারদিনে একাধিক কর্মসূচি সেরে অভিষেক ফিরবেন কলকাতায়।

Advertisement

ইতিমধ্যে মহারাষ্ট্রবাদী গোমন্তক পার্টির (MGP) সঙ্গে জোটের ঘোষণা করেছে তৃণমূল (TMC)। গোয়ার বিধানসভা নির্বাচন একদফায়, ১৪ ফেব্রুয়ারি। ৪০ আসনের এই বিধানসভায় প্রাথমিকভাবে ৩০ আসনে লড়তে চলেছে তৃণমূল। বাকি আসনে লড়তে পারে এমজিপি। এর মধ্যেই সেখানে এনসিপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের জোট নিয়ে আলোচনা চলছে বলে চমকে দিয়েছিলেন শরদ পাওয়ার। যদিও এ খবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন পি চিদম্বরম ও কে সি বেনুগোপালের মতো কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা।

[আরও পড়ুন: পুলিশ সেজে ১২৫ কোটি টাকার প্রতারণা! BSF আধিকারিকের বাড়ি থেকে উদ্ধার বিপুল সম্পত্তি]

এর মধ্যেই একদিন আগে এ নিয়ে ফের সরব হন তৃণমূল সাংসদ তথা গোয়ার ইনচার্জ মহুয়া মৈত্র (Mohua Moitra)। বলেছিলেন, কংগ্রেস গোয়ায় ঢিমেতালে এগোচ্ছিল বলেই বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে লড়াইয়ের উদ্যোগ নেয় তৃণমূল। তারপর এখানে তৃণমূলের সঙ্গে জোট নিয়ে আগ্রহ দেখায় কংগ্রেসও। তারপরই আনুষ্ঠানিকভাবে এ নিয়ে তাদের মনোভাব জানতে চিঠি দেয় তৃণমূল। তার জবাব এখনও মেলেনি বলে জানিয়েছিলেন মহুয়া।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: Abhishek Banerjee: সদ্যোজাতকে বাঁচাতে পাশে দাঁড়ানোর আর্তি টলিপাড়ার শিল্পীর, এগিয়ে এল অভিষেকের টিম]

এসব চর্চার মাঝে সোমবার গোয়া যাচ্ছেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সার্বিকভাবে ভোটের আগে বা পরে ফলাফলের ভিত্তিতে এনসিপি, আপ, বা কংগ্রেস কারও সঙ্গে আদৌ তৃণমূল–এমজিপি জোট নতুন করে হাত মেলাবে কিনা, তা নিয়ে একপ্রকার রফাসূত্র অভিষেকের এই সফর থেকে মিলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে অভিষেকের এই সফরের আগেই সে রাজ্যে তৃণমূল ছেড়েছেন এক মাস আগে কংগ্রেস (Congress) থেকে সে দলে যোগ দেওয়া অ্যালেক্সিও রেজিনাল্ডো। তিনি আবার কংগ্রেসেই ফিরছেন বলে খবর।

Advertisement
Next