বেঙ্গালুরুতে গ্রেপ্তার কাশ্মীরে হিন্দু হত্যায় জড়িত হিজবুল জঙ্গি

02:32 PM Jun 07, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেঙ্গালুরুতে ধরা পড়ল এক হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি (Hijbul Mujahidin Terrorist)। গত একমাস ধরে কাশ্মীরে পরপর জঙ্গি হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে হিন্দুদের বেছে নিশানা করেছে জঙ্গিরা। সেই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তালিব হুসেন নামে এক জঙ্গিকে। জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে ওই জঙ্গি।

Advertisement

গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে কর্ণাটকের (Karnataka) মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই বলেছেন, “এখনও তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। সন্দেহভাজনদের উপরে নজর রাখা হচ্ছে। যৌথ ভাবে অভিযান চালিয়েছিল কর্ণাটক এবং কাশ্মীর পুলিশ। তাতেই একজন জঙ্গি ধরা পড়েছে।” জম্মু কাশ্মীরের আইজি জানিয়েছেন, “কাশ্মীরি পণ্ডিত রাহুল ভাটের খুনের সঙ্গে জড়িত দুই জঙ্গির মধ্যে একজনকে নিকেশ করা হয়েছে। আরেকজনের উপরে নজর রাখা হচ্ছে।” গত সপ্তাহেই ব্যাংকের ভিতরে ঢুকে খুন করা হয় ম্যানেজার বিজয় কুমারকে। সেই ঘটনা প্রসঙ্গে আইজি বলেছেন, “সেই ঘটনায় অভিযুক্তদের ইতিমধ্যেই চিহ্নিত করা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।”

[আরও পড়ুন: গোয়ায় ছুটি কাটাতে এসে পুরুষসঙ্গীর সামনেই ধর্ষিতা বিদেশিনী, গ্রেপ্তার যুবক]

সাম্প্রতিক কালে হিজাব বিতর্ক-সহ নানা ইস্যুতে অগ্নিগর্ভ হয়ে রয়েছে কর্ণাটক। সেই আবহে জঙ্গির গ্রেপ্তারের খবর ছড়িয়ে পড়লে অশান্তি হতে পারে এমন আশঙ্কা রয়েছে। সেই কারণে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।  

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত, জঙ্গিদের কোমর ভাঙতে তৎপর হয়েছে নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী। আজই ভোরে হওয়া এনকাউন্টারে এক পাকিস্তানি সন্ত্রাসবাদী-সহ নিহত হয়েছে দুই জঙ্গি। এদিন ভোরে কুপওয়ারা জেলায় চকতারাস কান্দি এলাকায় জঙ্গিদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই শুরু হয়। সেনা, আধাসেনা ও পুলিশের যৌথদলের সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে জেহাদিদের। বেশ কিছুক্ষণ লড়াইয়ের পর তুফাইল নামের এক পাকিস্তানি জঙ্গি-সহ দুই সন্ত্রাসবাদী নিহত হয়। মৃতরা পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবার সদস্য।

বারবার সাধারণ মানুষের খুনের (Kashmir Target Killing) ঘটনায় উত্তাল কাশ্মীর। অনেকেই প্রাণভয়ে কাশ্মীর ছেড়ে পালানোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন স্থানীয় মানুষ। তাই জঙ্গি দমনে সক্রিয় ভূমিকা নিচ্ছে সেনা-সহ অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনী। বিগত দিনে উপত্যকায় একের পর এক খতম করা হয়েছে জেহাদি কমান্ডারদের। গত জুন মাসে শ্রীনগরে নিকেশ করা হয় লস্কর-ই-তইবার কুখ্যাত জঙ্গি নাদিম আবরারকে। এবারও সেই আক্রমণাত্মক পথেই হাঁটছে বাহিনী।

[আরও পড়ুন: দুশ্চিন্তার মাঝে সামান্য স্বস্তি, দেশে একদিনে ৪ হাজারের নিচে নামল করোনা সংক্রমণ, কমল মৃত্যুও

Advertisement
Next