Advertisement

চিন-পাকিস্তানকে কড়া টক্করের প্রস্তুতি, নৌসেনার অন্তর্ভুক্ত সাবমেরিন INS Vela

01:25 PM Nov 25, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরও শক্তিশালী হল ভারতীয় নৌসেনা (Indian Navy)। এবার তাদের ভাঁড়ারে যুক্ত হল স্করপেন গোত্রীয় সাবমেরিন আইএনএস ভেলা। বৃহস্পতিবারই সরকার পরিচালিত মাজগাঁও শিপবিল্ডার্স লিমিটেড নির্মিত এই রণতরী অন্তর্ভুক্ত হল ভারতের স্করপেন গোত্রের চতুর্থ সাবমেরিন (Submarine) হিসেবে। ভারত ও ফ্রান্সের যৌথ কৌশলী অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবেই এটি নির্মিত হয়েছে।

Advertisement

কী বিশেষত্ব ভেলার? জানা গিয়েছে, এই সাবমেরিনে রয়েছে সি৩০৩ অ্যান্টি টর্পেডো কাউন্টারমেসার সিস্টেম। একসঙ্গে ১৮টি টর্পেডো বহনে সক্ষম আইএনএস ভেলায় রয়েছে জাহাজ ধ্বংসকারী ক্ষেপণাস্ত্র। ৮ জন নৌসেনা অফিসার ও ৩৫ জন সেনা থাকতে পারবেন এই যুদ্ধজাহাজে।

[আরও পড়ুন: দেশে ক্রমশ কমছে করোনার দাপট, ৫৩৯ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন অ্যাকটিভ কেস]

এদিন মুম্বইয়ে নৌসেনা প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিংয়ের উপস্থিতিতে মুম্বইয়ের সেনাবন্দরে আত্মপ্রকাশ করে সাবমেরিনটি। ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে গত কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা টানাপোড়েনের মুহূর্তে নতুন এক সাবমেরিনের অন্তর্ভুক্তি নিঃসন্দেহে ভারতের শক্তিবৃদ্ধি করল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। এদিন নৌসেনা প্রধানের গলাতেও সেই সুর শোনা যায়। তিনি বলেন, ”চিন ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রতিরক্ষা নিয়ে সমঝোতার বিষয়টির দিকে আমরা লক্ষ্য রেখেছি।” তাঁর কথা থেকে পরিষ্কার, চিন ও পাকিস্তানের আঁতাতের দিকে তাকিয়েই সদা সতর্ক রয়েছে ভারতীয় নৌসেনা। জলপথে তৈরি হওয়া যে কোনও ষড়যন্ত্রকে ব্যর্থ করতে ভারত যে মরিয়া তাও স্পষ্ট নৌসেনার পদক্ষেপে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে নৌসেনার অন্তর্গত হয় সাবমেরিন আইএনএস কালভারি। পরে ২০১৯ সালে আইএনএস খান্ডেরি ও ২০২১ সালে আইএনএস করঞ্জও যুক্ত হয় নৌসেনায়। অবশেষে চতুর্থ সাবমেরিন হিসেবে নৌসেনায় অন্তর্ভুক্ত হল আইএনএস ভেলা। এই মুহূর্তে নির্মাণকাজ চলছে আরেক সাবমেরিন আইএনএস ভাগির।

[আরও পড়ুন: ‘সক্কাল সক্কাল… অর্গাজম’! পোস্টে কীসের ইঙ্গিত শ্রীলেখা মিত্রর?]

Advertisement
Next