Advertisement

মার্কিন সফর থেকে ফিরে আচমকাই নির্মীয়মাণ সংসদ ভবন পরিদর্শনে PM Narendra Modi

11:55 AM Sep 27, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৪ ঘণ্টাও হয়নি আমেরিকা থেকে ফিরেছেন। তারপরই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকও সেরেছেন। আর এরপরই দিল্লিতে নির্মীয়মাণ নয়া সংসদ ভবন তৈরির কাজ সরেজমিনে দেখতে চলে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। এই আচমকা সফরের বিষয়ে কোনও আগাম খবর ছিল না কারও কাছেই। সেই কারণে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়নি। নিরাপত্তা ছাড়াই ওই জায়গা পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement

জানা গিয়েছে, রবিবার রাত ৮ টা ৪৫ নাগাদ ‘সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রজেক্ট’-এর কাজ দেখতে যান প্রধানমন্ত্রী। এক ঘণ্টা থেকে গোটা জায়গাটি ঘুরেও দেখেন তিনি। কেমন চলছে সমস্ত কিছু? কতটা এগিয়েছে নতুন সংসদ ভবন নির্মাণের কাজ? সেগুলিই সব ঘুরে দেখেন মোদি। প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় সরকার প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার সাহায্যে এই সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রজেক্ট তৈরি করছে। যার মধ্যে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা খরচ করা হবে নতুন সংসদ ভবন নির্মাণে। রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ইন্ডিয়া গেট পর্যন্ত এই তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে তৈরি হবে সংসদীয় কার্যালয়। আর এর বরাত পেয়েছে টাটা গোষ্ঠী।

[আরও পড়ুন: বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার না হলে রাজ্যে রাজ্যে বিজেপি বিরোধী প্রচারের হুঁশিয়ারি টিকাইতের]

এর আগে গত বছর ১০ ডিসেম্বরে সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রজেক্টের শিলান্যাস করেন প্রধানমন্ত্রী। তার পর সুপ্রিম কোর্টের অনুমতিতে শুরু হয় কাজ। গত মাসে লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা জানিয়েছিলেন যে, নতুন সংসদ ভবনের নির্মাণ আগামী বছর ১৫ অগস্টের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা। অর্থাৎ আগামী বছর থেকে নতুন সংসদ ভবনে বসবেন সাংসদরা।

প্রসঙ্গত, দিল্লিতে তৈরি হওয়া এই ‘সেন্ট্রাল ভিস্তা’ প্রজেক্ট নিয়ে বিরোধীরা লাগাতার কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করেছে। এমনকী আদালতে মামলাও দায়ের হয়েছে। যদিও তা ধোপে টেকেনি। পরবর্তীতে এই প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষও করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দিল্লিতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নতুন অফিসের উদ্বোধন করার অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ”আমরা সবাই দেখেছি কীভাবে গুরুত্বপূর্ণ সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পে অন্তর্ঘাত করতে চাইছেন কিছু ব্যক্তি। কীভাবে তাঁরা ব্যক্তিগত অ্যাজেন্ডার জন্য ভুয়ো তথ্য ছড়াচ্ছেন। কিন্তু তাঁরা কখনও এখানকার দৈন্য অবস্থা নিয়ে কিছু বলেন না। কোথায় বসে আমাদের মন্ত্রককে কাজ করতে হয় এবং তাঁরা কখনও প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এই নতুন অফিস নিয়ে কিছু বলবেন না। বলবেন না এই অফিস নির্মাণ কতটা জরুরি ছিল। তা করলে তাঁদের মিথ্যে ও অ্যাজেন্ডা ধরা পড়ে যেত।”

[আরও পড়ুন: ‘বেহিসেবি’ টাকা আর পকেটে ভরতে পারবেন না RPF কর্মীরা, স্বচ্ছতা আনতে কড়া নীতি রেলের]

প্রসঙ্গত, সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পেরই অন্তর্গত প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওই দপ্তর। কস্তুরবা গান্ধী মার্গ ও আফ্রিকা অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের নবনির্মিত অফিস দু’টিতে সব মিলিয়ে ৭ হাজার প্রতিরক্ষা কর্মী কাজ করতে পারবেন।

Advertisement
Next