ভোটের আগে রাতে ত্রিপুরায় আক্রান্ত TMC প্রার্থী, পরিবারকে খুনের হুমকি

09:05 AM Jun 23, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটের আগে রাতেও রাজনৈতিক সন্ত্রাসের সাক্ষী রইল ত্রিপুরা (TMC)। বিজেপির দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হলেন সুরমা বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী অর্জুন নমঃশূদ্র। বুধবার রাতে তাঁর গাড়ি ভাঙচুর হয়। প্রাণ বাঁচাতে দলীয় কর্মীদের বাড়িতে আশ্রয় নেন তিনি। অভিযোগ, সুরমা বিধানসভা (Surma Assembly) এলাকায় ভোটারদের ভয় দেখাতে ছোঁড়া হয় গুলিও। এমনকী, প্রার্থীর পরিবারকে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়। এই ঘটনায় কমলপুর থানায় অভিযোগও দায়ের করে তৃণমূল। যদিও হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব।

Advertisement

আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ত্রিপুরার চার বিধানসভা আসন-আগরতলা, টাউন বরদোয়ালি, সুরমা এবং যুজনগরে উপনির্বাচন (Tripura Bypoll)। নিজেদের সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়েছে তৃণমূল। আবার এই ভোট বিজেপি-কংগ্রেসের প্রেস্টিজ ফাইট। ভোটে লড়ছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী ড. মানিক সাহা। আবার সদ্য বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে ফেরা সুদীপ রায় বর্মনও নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নিয়েছেন। ফলে নামে উপনির্বাচন হলেও চার কেন্দ্রের ভোট নিয়ে ত্রিপুরার রাজনীতির পারদ চড়েছে। এর মাঝেই ভোটের আগের রাতে বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠল সুরমা কেন্দ্রে।

[আরও পড়ুন: ‘তৃণমূলে আসতে হলে মাথা নত করতে হবে’, শোভনের ঘরওয়াপসির জল্পনায় মুখ খুললেন রত্না]

তৃণমূল প্রার্থী অর্জুন নমঃশূদ্রর অভিযোগ, বুধবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে প্রায় ৩০০ জন দুষ্কৃতী মোটর সাইকেল নিয়ে তাঁর গাড়ির পিছনে ধাওয়া করে। লাঠি, হকি স্টিক নিয়ে হামলা করা হয়। ভাঙচুর হয় গাড়ি। প্রাণভয়ে দলীয় কর্মী দীপক দাসের বাড়িতে আশ্রয় নেন অর্জুন। এরপর দীপকের বাড়িও ঘেরাও করে দুষ্কৃতী। চলে অকথ্য গালগালাজ এবং হুমকি। পরে এলাকায় আতঙ্ক ছড়াতে শূন্যে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে তারা। লিখিত পুলিশি অভিযোগে তৃণমূল প্রার্থী জানিয়েছেন, দলীয় সমর্থকদের নিয়ে ভোটের দিন জমায়েত করলে পরিবারকে খুন করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, সুরমার বিজেপি প্রার্থী স্বপ্না পালের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনেও ভোট লুঠের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করেছে তৃণমূল।

Advertising
Advertising

 

তবে এই প্রথমবার নয়, এবারের ভোটপ্রচারের সময় থেকেই তৃণমূলকে নিশানা করেছে বিজেপি। তৃণমূলেকর কর্মী-সমর্থক থেকে প্রার্থী, কেউ রেহাই পায়নি। ঘাসফুল শিবিরে যোগ দেওয়ায় একই পরিবারের ৪ জনকে কোপানোর অভিযোগ উঠেছিল বিজেপির বিরুদ্ধে। প্রার্থী পান্না দেবকেও গাড়ি থেকে টেনে হিঁচড় নামানো হয়েছিল। এবার ভোটের আগের রাতে হুমকির মুখে পড়লেন তৃণমূল প্রার্থী।

[আরও পড়ুন: পাড়ায়-পাড়ায় বেসরকারি চিকিৎসাকেন্দ্র খোলা এখন আরও সহজ, বিধানসভায় পাশ বিল]

Advertisement
Next