Advertisement

TMC in Tripura: তৃণমূল ভবনে ত্রিপুরার বিজেপি বিধায়ক, তুঙ্গে দলবদলের জল্পনা

07:31 PM Oct 02, 2021 |

সন্দীপ চক্রবর্তী: ত্রিপুরার (Tripura) বিজেপিতে ভাঙন শুরু! এবার আরএসএস (RSS) ঘনিষ্ঠ বিধায়ক আশিস দাসকে দেখা গেল কলকাতার তৃণমূল ভবনে। শনিবার তিনি কলকাতায় এসে তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করেন বলে সূত্রের খবর। আরএসএস ঘনিষ্ঠ বিজেপি (BJP) বিধায়কের এগেন ‘তৃণমূল প্রীতি’ ত্রিপুরার বিজেপি নেতৃত্বের কপালের ভাঁজ চওড়া করবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Advertisement

গত কয়েক দিন ধরেই ‘বেসুরো’ ছিলেন সুরমার তরুণ বিধায়ক। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের ‘আদালত অবমাননা’ মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন আশিসবাবু। বলেছিলেন, “ত্রিপুরা সিভিল সার্ভিসের আধিকারিদের সম্মেলনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব যে মন্তব্য করেছেন, তা আদালত অবমাননার সমান।” কার্যত তৃণমূলের সুরেই সুর মিলিয়েছিলেন আশিসবাবু। বিপ্লব দেবের আদালত অবমাননার তুমুল সমালোচনা করে তিনি বলেছিলেন,”বলা হচ্ছে ত্রিপুরায় আইনের শাসন আছে। যদিও সেটা দেখা যাচ্ছে না। এখানেন এক-এক জনের জন্য এক এক রকম আইন। যেটা বাস্তব, যেটা সত্য তা স্বীকার করতে হবে। আমি পক্ষপাতিত্ব করছি না।” এমনকী, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আক্রমণ ও সিপিএমের দলীয় কার্যালয়ের ভাঙার সমালোচনাও করেছিলেন তিনি। 

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: Babul Supriyo: সময় দিচ্ছেন না স্পিকার, সাংসদ পদ ছাড়তে দেরি, অভিযোগ তুলে টুইট বাবুল সুপ্রিয়র]

উল্লেখ্য, আশিস দাস দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি করছেন। আরএসএস ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত তিনি। বিজেপির বিক্ষুব্ধ বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মনেও কাছের মানুষ তিনি। তাঁর এভাবে তৃণমূল ভবনে আসা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

একুশের বঙ্গযুদ্ধের বিজেপিকে ধরাশায়ী করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পর থেকেই জাতীয় রাজনীতিতে নিজেদের গুরুত্ব বাড়াতে ঝাঁপিয়েছে ঘাসফুল শিবির। আপাতত তাঁদের পাখির চোখ ত্রিপুরা। তৃণমূলের দাবি, তাদের দলে যোগ দিতে মুখিয়ে রয়েছেন একাধিক বিধায়ক। তাঁদের এই দাবি নেহাতই জল্পনা বলে এতদিন উড়িয়ে এসেছে বিজেপি। কিন্তু আশিস দাস ঘাসফুল শিবিরে নাম লেখালে তৃণমূলের দাবিতেই সিলমোহর দেবে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন: ফিরল ‘রঘু ডাকাত’দের দিন! ফোনে হুমকি দিয়েই পুলিশকর্মীর ৫০ হাজার টাকা হাতাল দুষ্কৃতীরা]

Advertisement
Next