Advertisement

নিষ্ক্রিয়রা বাদ, নেতৃত্বে আসছে নতুন প্রজন্ম, বঙ্গ CPM-এ ব্যাপক সংস্কারের পথে Yechury

09:02 AM Aug 10, 2021 |

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: একুশে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে (WB Assembly Polls 2021) দলের শূন্যপ্রাপ্তির পর খোলনলচে বদলাতে নড়েচড়ে বসেছে সিপিএম (CPM)। আমূল সংস্কারের কথা ভাবা হচ্ছে। বিজ্ঞপ্তির পর বিজ্ঞপ্তি। প্রশ্নমালার পর প্রশ্নমালা। দিস্তার পর দিস্তা দলিল। লবির জোরে চেয়ার দখল করে পার্টি অফিসে বসে স্রেফ ‘আড্ডা’! কাজের নামে পর্বতের মূষিক প্রসব। পার্টির অন্দরে এই প্রবণতা ভাঙতে বঙ্গে আসছেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)-সহ একদল শীর্ষনেতা। ‘অকর্মণ্য’দের চেয়ার থেকে টেনে নামাতে বৃহস্পতিবার থেকে আলিমুদ্দিনে বসছে সিপিএমের রাজ্য কমিটি। সংগঠনকে কীভাবে ঢেলে সাজানো যায়, তার চূড়ান্ত রূপরেখা তৈরি হবে ২ দিনের এই বৈঠকে। এমনই খবর আলিমুদ্দিন সূত্রে। পাশাপাশি এ রাজ্যের শাসকদল সম্পর্কে সিপিএমের দলগত অবস্থান ঠিক করা নিয়ে আলোচনার সম্ভাবনাও রয়েছে।

Advertisement

তৃণমূল (TMC) ও বিজেপি (BJP) উভয়েই এ রাজ্যে প্রতিযোগিতামূলক সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি করছে বলে প্রায়ই অভিযোগ করতেন বঙ্গের কমরেডকুলের শিরোমনিরা। রাজ্যের শাসকদল পুরোপুরি অসাম্প্রদায়িক নয় বলে একাধিকবার বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্রদের সরব হতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু একুশের ভোটে তাঁদের দলের ভরাডুবির পর তৃণমূল সম্পর্কে মূল্যায়নে ১৮০ ডিগ্রি অবস্থান বদল করেছে আলিমুদ্দিন। বাংলার ভোটের ফলাফলকে সাম্প্রদায়িক শক্তির পরাজয় বলে ব্যাখ্যা দিয়েছে সিপিএম কেন্দ্রীয় কমিটি (CPM Central Committee)। লোকসভা ভোটের কথা চিন্তাভাবনা করেই তৃণমূল সম্পর্কে পার্টির শীর্ষ কমিটির অবস্থান বদল বলে মনে করছে বঙ্গ সিপিএম।

[আরও পড়ুন: দেশের ‘দুর্বলতম’ শিশুর হৃৎপিণ্ডের ত্রুটি মেরামত করে নজির গড়ল হাওড়ার হাসপাতাল]

তবে বঙ্গ সিপিএমের সংগঠন নিয়ে সবচেয়ে চিন্তিত দিল্লির একে গোপালন (AKG) ভবনের কর্তারা। তাই চলতি বছরের মধ্যে পার্টির নিচ থেকে উপর পর্যন্ত নেতৃত্বে ব্যাপক রদবদলের পক্ষপাতী দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। চলছে নিষ্ক্রিয়দের তালিকা তৈরির কাজ। নির্বাচনে প্রার্থী তালিকার মতো সংগঠনের নেতৃত্বে নতুনদের জায়গা করে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন সাধারণ সম্পাদক। রাজ্য কমিটির বৈঠকে পার্টির মনোভাবের কথা তিনি স্পষ্ট করবেন বলে জানা গিয়েছে। আবার ভোটে ভরাডুবির পর সাধারণ মানুষের কাছে চিঠি পাঠিয়ে মতামত ও পরামর্শ চেয়েছিল সিপিএম। হাজার হাজার চিঠি পৌঁছেছে আলিমুদ্দিনে। সেই মতামত ও পরামর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামীর পথ খোঁজার কাজও হবে বলে সূত্রের খবর।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: কলকাতা পুরসভায় চাকরি দেওয়ার নামে লক্ষ-লক্ষ টাকার প্রতারণা, ধৃত ২]

Advertisement
Next